আফগানিস্তানের ক্ষমতা বুঝে নিয়েছে তালেবান। এর পর থেকেই যেকোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাওয়ার সময় ভিসা জটিলতায় ভুগেছে আফগানিস্তান। বছরের শুরুতে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে তো খেলাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল আফগানিস্তানের। এ কারণেই আবুধাবিতে অনুশীলন ক্যাম্প করেছে আফগানিস্তান। এতে অনুশীলনের পাশাপাশি ভিসার আনুষ্ঠানিকতাও পূর্ণ করতে পারবেন খেলোয়াড়েরা।

রেসিডেন্স ভিসা পেলে খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা আরও দীর্ঘ সময়ের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে থাকতে পারবেন এবং এর ফলে অন্য দেশে ভিসার আবেদন করাটাও সহজ হবে তাঁদের জন্য। সে ক্ষেত্রে আর ভিসার আবেদন করার জন্য আফগানিস্তানে ফিরতে হবে না তাঁদের। কিছুদিন পরই আয়ারল্যান্ডে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে যাবে আফগানিস্তান। আবুধাবি থেকেই সে সফরের জন্য ভিসার আবেদন করবে এসিবি।

এক বিবৃতিতে বোর্ড জানিয়েছে, ‘এসিবি প্রায়ই অন্য দলগুলোর সঙ্গে সিরিজ সংযুক্ত আরব আমিরাতে আয়োজন করে। তাই কিছু কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়ের আমিরাতে নাগরিকত্ব পাওয়া বা নাগরিকত্বের অনুমতিপত্র পাওয়া জরুরি।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানের সঙ্গে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলার কথা আফগানিস্তানের। গত বছর আগস্টেই এ সিরিজ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তখন দেশে ক্ষমতার পালাবদলে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে সে সিরিজ আর খেলা হয়নি আফগানিস্তানের।