সুযোগ হাত ফসকাচ্ছে কোহলির।
সুযোগ হাত ফসকাচ্ছে কোহলির। ছবি: বিসিসিআই

বিরাট কোহলি মানেই রানের ফোয়ারা। কিন্তু আরব আমিরাতে চলমান আইপিএলে শুরুটা মোটেই ভালো করতে পারেননি বেঙ্গালুরু রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের ভারতীয় ব্যাটসম্যান। সর্বশেষ ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ক্যাচ ছেড়েছেন দুটি। ফিল্ডিংয়ের মতো পরে ব্যাট হাতেও ব্যর্থ, রান করেছেন মাত্র ১। এর আগে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষেও ১৪ রান করেছেন বেঙ্গালুরু অধিনায়ক। স্পষ্টত মরুর বুকে রানের ঝড় নেই কোহলির ব্যাটে। এই নিয়ে শুরু হয়েছে সমালোচনা।

ভারতের সাবেক অধিনায়ক সুনীল গাভাস্কার পর্যন্ত কোহলির ক্যাচ ছাড়া নিয়ে মন্তব্য করেছেন। তবে খারাপ সময়ে ছোট বেলার কোচকে পাশে পাচ্ছেন কোহলি। তাঁর কোচ রাজকুমার শর্মা মনে করিয়ে দিয়েছেন তাঁর ছাত্র কোহলিও মানুষ, যন্ত্র নয়।

বিজ্ঞাপন

ক্যারিয়ারজুড়ে কোহলির সাফল্যের সঙ্গেই পরিচয় বেশি হয়েছে। কিন্তু তার মানে ব্যর্থতা যে একেবারেই নেই, তা তো নয়। রাজকুমারও তা-ই বলছেন, ‘একজন খেলোয়াড়ের জীবনের এটি (খারাপ সময়) একটি অংশ। মাঠে আপনার সময় ভালো-খারাপ মিলিয়েই কাটবে। কোহলি নিজেকে এমন একটি মানদণ্ডে নিয়ে গেছে যে মানুষ ভুলেই যায় ও কেবলই একজন মানুষ, মেশিন নয়। আপনার খারাপ সময় যেতেই পারে এবং এখানে দোষের কিছু নেই। মানুষ প্রশ্ন তুলতে পারে, সমস্যাটা মানসিক কি না, নাকি ব্যাটিংয়ের টেকনিক্যাল সমস্যা। কিন্তু আমি আবারও বলব এটি খেলারই অংশ।’
সাধারণত কোহলি উইকেটে থাকা মানেই চার-ছক্কার ফুলঝুরি। কিন্তু এই পারফরম্যান্স প্রতিটি ম্যাচেই তো আর করে দেখানো সম্ভব নয়। ব্যর্থ হলেই সমর্থকেরা হতাশ হয়ে পড়েন বলে জানিয়েছেন রাজকুমার, ‘মাঠে সব সময় আপনি সফল হতে পারবেন না। কোহলির সমর্থকেরা ওকে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলতে দেখেন তো। ও একটা ইনিংসে খারাপ করলেও তাঁরা কষ্ট পান।’

বিজ্ঞাপন
default-image

গত ম্যাচে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরিতে ২০৬ রানের পাহাড় গড়েছে পাঞ্জাব। সেঞ্চুরির পথে কোহলির হাতে দুবার জীবন পেয়েছেন রাহুল। ছাত্রের ক্যাচ ছাড়ার প্রসঙ্গে রাজকুমার বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এরকম হতেই পারে। যে কেউ একটি-দুটি ক্যাচ মিস করতে পারে। এমনকি জন্টি রোডসও মাঝে মধ্যে দু-একটি ক্যাচ মিস করেছেন। জাভেদ মিয়াদাদকে দারুণ ফিল্ডার বলা হতো। কিন্তু আপনি পেছনে ফিরে গেলে দেখবেন, দু-একবার ক্যাচ তাঁরও হাত ফসকেছে। এটি নিতান্তই একটি খারাপ দিন, এমনটা বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রেও ঘটতে পারে।’ তবে খারাপ সময়ের মধ্যে থেকে বের হওয়া কোহলির জানা আছে বলে জানিয়েছেন রাজকুমার, ‘ভালোভাবে ফিরে এসে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো যথেষ্ট অভিজ্ঞতা ওর আছে।’

মন্তব্য পড়ুন 0