default-image

বিরাট কোহলি ও অজিঙ্ক রাহানের মধ্যকার ২৬২ রানের জুটিটি ভারতকে বড় কিছুরই স্বপ্ন দেখিয়েছিল। ১৯২৫ সালের পর মেলবোর্ন ক্রিকেট মাঠে কোনো বিদে​িশ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ জুটিটির পর ভারতের নিচের দিকের ব্যাটসম্যানদের কাছে প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু তাদের ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত লিডটা আর নেওয়া হয়নি ভারতের। কোহলি-রাহানের ২৬২ রানের জুটির পর বিরাট কোহলিই সর্বোচ্চ ২৮ রান যোগ করেন মোহাম্মদ শা​িমকে সঙ্গে নিয়ে। ভারতের শেষ তিন উইকেটের পতন ঘটে মাত্র ৩ রানে!
ভারতীয় ইনিংসের শেষটা হয়েছে মিচেল জনসনের হাত দিয়েই। উমেশ যাদবকে উইকেটের পেছনে হাডিনের ক্যাচে পরিণত করে ফেরানোর পর মোহাম্মদ শামিকে আউট করেন স্লিপে স্মিথের ক্যাচ বানিয়ে।
৬৫ রানে এগিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা অস্ট্রেলিয়া টেস্টের চতুর্থ দিন শেষ করেছে ৩২৬ রানের বড়সর একটা লিড নিয়েই। ৭ উইকেটে তাদের সংগ্রহ ২৬১। ক্রিস রজার্স আর ডেভিড ওয়ার্নারের পর শন মার্শ—এই ত্রয়ীর ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি অস্ট্রেলীয় ইনিংসে যুক্ত হয়েছে লোয়ার অর্ডারে ব্র্যাড হাডিন ও মিচেল জনসনের যথাক্রমে ১৩ ও ১৫ রানের কার্যকরী দুটো ইনিংস।
ভারতীয় বোলাররা দ্বিতীয় ইনিংসে ভালোই বল করেছেন। সেই সঙ্গে ফিল্ডিংটাও চমৎ​কারই হয়েছে ভারতের। লেগ স্লিপে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের দুর্দান্ত একটা ক্যাচ নিয়েছেন রাহানে। দুটি করে উইকেট পেয়েছেন উমেশ যাদব, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও ইশান্ত শর্মা। ইশান্ত আজ ভারতের পক্ষে সব ধরনের ফরম্যাটে ৩০০ উইকেটের মালিকানা পেয়েছেন। অষ্টম ভারতীয় বোলার হিসেবে তিনশ উইকেট-ক্লাবের সদস্যপদ পেলেন তিনি।
অসম্পূর্ণ দ্বিতীয় ইনিংসটা অস্ট্রেলিয়া আর কতদূর টেনে নিয়ে যাবে—দেখার বিষয় এখন এটিই। অ্যাডিলেড টেস্টের অভিজ্ঞতা থেকে ৩২৬ রানের লিডটা অস্ট্রেলিয়ার কাছে নিরাপাদ মনে না হলে কাল মধ্যাহ্ন বিরতির আগ পর্যন্ত হয়ত ব্যাটিং করার পরিকল্পনাটা নেবে অস্ট্রেলিয়া। খুব সাহসী হলে কাল সকালেই ব্যাট হাতে মাঠে দেখা যেতে পারে শিখর ধাওয়ান ও মুরলি বিজয়কে। সেক্ষেত্রে ভারত টেস্টের শেষ দিনে জয়ের লক্ষ্যে যে ঝাপাবে, একথা বলাই বাহুল্য। সূত্র: এএফপি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন