কলকাতার অনুশীলনে সাকিবের সঙ্গে আলাপচারিতায় সুনীল নারাইন ও আন্দ্রে রাসেল।
কলকাতার অনুশীলনে সাকিবের সঙ্গে আলাপচারিতায় সুনীল নারাইন ও আন্দ্রে রাসেল।ছবি: টুইটার

তাহলে সুনীল নারাইনের আপাতত সতীর্থদের চুল কেটেই সময় কাটছে?

মজা করে প্রশ্নটা যে কেউ তুলতেই পারেন। আইপিএলের মৌসুম শুরু হয়ে গেছে। কলকাতা নাইট রাইডার্স এর মধ্যে দুটি ম্যাচও খেলে ফেলেছে। অথচ সুনীল নারাইনকে দেখা যাচ্ছে না কলকাতা নাইট রাইডার্সের একাদশে!

বিশ্লেষকদের মতে, তাঁর জায়গায় সাকিব আল হাসানকে দিয়ে দুটি ম্যাচ খেলিয়েছে কলকাতার টিম ম্যানেজমেন্ট। নারাইন একসময় ছিলেন শুধু বৈচিত্র্যপূর্ণ স্পিনার। আইপিএলে তাঁকে দিয়ে ব্যাটিংয়ে মাঝেমধ্যে ঝড় তুলেছে কলকাতা। এরপর থেকেই অলরাউন্ডারের মর্যাদাটা ভালোভাবে লেপ্টে গেছে তাঁর সঙ্গে।

কিন্তু সাকিবের বেলায় তেমন কিছু ঘটেনি। চোস্ত অলরাউন্ডার হিসেবেই তিনি প্রথম থেকে খেলছেন আইপিএলে। অতএব, নারাইনের জায়গায় সাকিবকে খেলানো নিয়ে প্রশ্ন ওঠার সুযোগ খুব সামান্যই।

বিজ্ঞাপন

কলকাতার সমর্থকেরা ভাবতে পারেন, নারাইন নিজেও বোধ হয় তেমনই মনে করেন। নইলে সাকিবের সঙ্গে তাঁর এত ভাব জমে কীভাবে! না, এমন নয় যে যার কাছে দলে জায়গা হারিয়েছেন তাঁর সঙ্গে শত্রুতাটা বাধ্যতামূলক।

এসব বড়জোর পাড়ার ক্রিকেটে হতে পারে। কিন্তু আইপিএলের মতো বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ও জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে এসবের সুযোগ নেই। তবু সাকিব আজ ইনস্টাগ্রামে যে ভিডিও পোস্ট করেছেন, তা দেখে যে কেউ ভাবতে পারেন—দুই অলরাউন্ডারের তো গলায়-গলায় ভাব!

নিজের অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আজ একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডার। সেই ভিডিও-তে দেখা যাচ্ছে, সাকিবের চুল কেটে দিচ্ছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার নারাইন। সাকিব বাধ্য ছেলের মতো চুপটি করে বসে, মাঝেমধ্যে মুচকি হাসছেন।

ওদিকে নারাইন যেন দক্ষ ‘নরসুন্দর’—পেশাদারদের মতোই নির্লিপ্ত মুখে ভীষণ মনোযোগের সঙ্গে নতুন ছাঁট দিচ্ছিলেন সাকিবের চুলে। ট্রিমার ও চিরুনি দিয়ে নারাইন যে দক্ষতাটুকু দেখালেন, তা দেখে যে কোনো পেশাদার নরসুন্দরেরও (নাপিত) ঈর্ষা হতে পারে! সাকিব ভিডিওটি পোস্ট করে ক্যাপশন লিখেছেন এক শব্দে, ‘চুলের ছাঁট।’

অর্থাৎ কলকাতার পরের ম্যাচেই নতুন চুলের ছাঁটে দেখা যাবে সাকিবকে? প্রশ্নবোধক চিহ্নটা রাখতে হচ্ছে। কারণ কাল মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে কলকাতার শেষ ম্যাচে সাকিব ভালো বল করলেও প্রয়োজনের সময়ে ব্যাট হাতে হাল ধরতে পারেননি।

৯ বলে ৯ রান করে বাজে শট খেলে আউট হন সাকিব। ১৫৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নামা কলকাতার হয়ে পাঁচে নেমে দলকে আরও বিপদের মুখে ঠেলে দিয়ে আসেন সাকিব। পরে সহজ ম্যাচটা কঠিন করতে করতে ১০ রানে হেরেছে কলকাতা। সে ক্ষেত্রে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে পরের ম্যাচে সাকিবের বদলে নারাইন মাঠে নামতে পারেন? সময়ই তা বলে দেবে।

আপাতত যেটুকু বলা যায়, সাকিব-নারাইনের জুটিটা জমেছে বেশ ভালোই। বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডার বেশ ফ্যাশনসচেতন। ওদিকে নারাইন তো নিত্যনতুন ফ্যাশনের ট্রেন্ড তৈরি করতে পছন্দ করেন। চুলে বাহারি সব ছাঁট দিয়েও আলোচনায় এসেছেন তিনি। কলকাতা সতীর্থদের চুলে নতুন ছাঁট এর আগেও দিয়েছেন নারাইন। এবার তাঁর পাল্লায় পড়লেন সাকিবও।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন