বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে তিনজন অবশ্য খেলোয়াড় তালিকায় আগে থেকেই আছেন। খেলোয়াড় ড্রাফট থেকে জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালকে নেয় ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল। বিসিবি উত্তরাঞ্চলে আছেন জাতীয় দলের টি–টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজুর রহমানকে নিয়েছে বিসিবি দক্ষিণাঞ্চল। আর সাকিব আল হাসানকে ড্রাফটের পর দলভুক্ত করেছে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল। এ টুর্নামেন্টে খেলার জন্য ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরার কথা সাকিবের।

default-image

চার দিনের ম্যাচের আসরে অবশ্য তাঁরা কেউই খেলেননি। ৫০ ওভারের টুর্নামেন্টে তারকাদের পেয়ে তাই খুশি নির্বাচক হাবিবুল বাশার, ‘আশা করি তারকা ক্রিকেটারদের উপস্থিতিতে জমজমাট হয়ে উঠবে টুর্নামেন্টটি।’

একটা সময় ছিল যখন ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট জাতীয় লিগে জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররাও খেলতেন। ঢাকার বাইরের দর্শকেরা সুযোগ পেতেন কাছ থেকে তাঁদের খেলা দেখার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ব্যস্ততায় জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এখন আর খুব বেশি সুযোগ হয় না ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে খেলার। অনেকের আবার অনীহাও আছে।

default-image

সাকিবের কথাই ধরুন। ২০১২ সালের পর এ পর্যন্ত ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মাত্র একটি ম্যাচই খেলেছেন তিনি, সেটিও ২০১৫ সালের জাতীয় লিগে। অন্যরাও যে খুব বেশি ম্যাচ খেলেন, তা নয়। তবে মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিম ও তামিম ইকবালরা সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এক–দুটি ম্যাচ হলেও খেলেছেন।

তারকা ক্রিকেটারদের ঘরোয়া ক্রিকেট মানে তাই মূলত বিপিএল আর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগই। এবার তার সঙ্গে যোগ হচ্ছে বিসিএলও।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন