ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটে ছক্কার দেখা মিলছে না।
ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটে ছক্কার দেখা মিলছে না। ছবি: এএফপি

গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের ক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই। মিডল অর্ডারে তাঁর মতো ঝড় তুলতে বিশ্বে অনেক কম ব্যাটসম্যানই পারেন। সে আশাতেই এবার নিলামে তাঁর ওপর ২২ লাখ ডলার খরচ করেছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, ভারতীয় হিসেবে প্রায় সাড়ে ষোলো কোটি রুপির মতো। কিন্তু এত খরচ করার পরেও ম্যাক্সওয়েলের কাছে প্রত্যাশিত ইনিংস পাচ্ছে কোথায় প্রীতি জিনতার দল?

ফিফটি-সেঞ্চুরি দূরে থাক, একটা ছক্কা মারতেই হাঁসফাঁস অবস্থা ম্যাক্সওয়েলের। ১৩ ম্যাচে এ পর্যন্ত একবারও ছক্কা মারতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডার। সব মিলিয়ে করতে পেরেছেন মাত্র ১০৮ রান। ধাওয়ান-পন্ত-রাবাদাদের দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ৩২ রানের ইনিংসটাই এই পর্যন্ত আইপিএলে তাঁর সর্বোচ্চ। খেলোয়াড়ের দাম বিচারে রানের পরিমাণ নিঃসন্দেহে যৎসামান্য। রানের পরিমাণই শুধু নয়, চোখে পড়ছে ম্যাক্সওয়েলের রান করার ধরনও। বাইশ গজের ক্রিজে ঝড় তোলা যার কাজ, এই আইপিএলে তাঁর স্ট্রাইকরেট মাত্র ১০১.৮৮। এ আসরে ন্যূনতম ১০৩ রান করেছেন, এমন খেলোয়াড়দের মধ্যে তাঁর স্ট্রাইক রেট সবচেয়ে কম।

বিজ্ঞাপন

প্যাট কামিন্সের সঙ্গে তুলনা করা যাক। জাতীয় দলের ম্যাক্সওয়েল-সতীর্থ এই পেস তারকা কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলছেন। মূল কাজ বোলিং হলেও এবার কিছু কিছু ম্যাচে হেসেছে তাঁর ব্যাট। দশ ম্যাচ খেলে ১৩১ রান তুলেছেন তিনি, ছক্কা মেরেছেন সাতটি। সে হিসেবে ম্যাক্সওয়েলের ব্যাটিংয়ের অবস্থা সতীর্থ বোলারের চেয়েও খারাপ! ম্যাক্সওয়েলের এই দৈন্যদশা চোখে পড়েছে সবার। এই বাজে ফর্মের পরেও তাঁকে খেলানো হলে আখেরে ক্ষতিটা যে পাঞ্জাবেরই হবে, সেটাও বলছেন অনেকে।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কলকাতা নাইট রাইডার্সের সাবেক অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর বলেছেন, ‘খেলোয়াড় হিসেবে সম্ভবত বাজে মৌসুম কাটাচ্ছে এবার ম্যাক্সওয়েল। ফলে সমস্যা হচ্ছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের। স্বাভাবিকভাবেই তার ওপর পাঞ্জাব অনেক ভরসা করে এত টাকা ঢেলেছিল। কিন্তু ম্যাক্সওয়েল সেই অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারছে না। প্রথম থেকে শুরু এই পর্যন্ত তার খেলা দেখে একবারও মনে হয়নি যে সে ছন্দে আছে।’

default-image

শুধু তাই নয়, ম্যাক্সওয়েলের ফর্ম ফেরানোর জন্য পাঞ্জাব তাঁকে ব্যাটিং অর্ডারের বিভিন্ন পজিশনে খেলিয়ে দেখেছে। ফলাফল একই। এটাও চোখে পড়েছে গম্ভীরের, ‘গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের জায়গায় আপনি কাকে খেলাবেন? যার ওপরে এত খরচ করেছেন? তাকে তিন নম্বরে খেলানো হয়েছে, চার নম্বরে খেলানো হয়েছে। কিন্তু সে প্রত্যেকবার ব্যর্থ হয়েছে। এই মৌসুমে রানের জন্য সংগ্রাম করতে হচ্ছে ওকে।’

গত রাতে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে হারার পরেও পাঞ্জাবের প্লে-অফ আশা বেঁচে আছে। কিন্তু আশা শেষ হতে সময় লাগবে না, যদি ম্যাক্সওয়েল ফর্মে না ফেরেন। বাকি ম্যাচগুলোর জন্য পাঞ্জাব এখন ম্যাক্সওয়েলের ওপর ভরসা রাখবে, না কি তাঁর জায়গায় অন্য কাউকে খেলাবে, দেখার বিষয় সেটাই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0