হার্শালের উইকেটের আনন্দ।
হার্শালের উইকেটের আনন্দ। ছবি: আইপিএল

১৫ কোটি রূপিতে কাইল জেমিসনকে কিনেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। খারাপ করেননি নিউজিল্যান্ডের ফাস্ট বোলার, ৪ ওভারে ২৭ রানে নিয়েছেন ১ উইকেট। বিরাট কোহলির দলে বোলিং ভরসা বলতে গেলে আছেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ সিরাজ, স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহালরাও। কিন্তু আইপিএলের প্রথম ম্যাচে আজ রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে এঁরা নন, চমকে দিয়েছেন হার্শাল প্যাটেল নামের অখ্যাত এক পেসার!

ব্যাপারটা যেন এমন যে, ম্যাচের আগে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস পড়ালেখা করেছিল চাহাল-সিরাজ-জেমিসনদের নিয়ে, আর সিলেবাসের বাইরে থেকে প্রশ্ন হয়ে এলেন হার্শাল!

২৭ রানে ৫ উইকেট নিয়ে তাক লাগিয়ে দেন তিনি। দারুণ শুরু করা মুম্বাইকে মাত্র ১৫৯ রানে বেঁধে ফেলার কৃতিত্বটা হার্শালেরই।

এই প্রতিবেদন লেখার সময়ে জবাব দিতে নেমে বেঙ্গালুরুর রান ৯ ওভারে ২ উইকেটে ৬৯।

বিজ্ঞাপন

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝেই আজ ভারতে শুরু হলো আইপিএলের ১৪তম আসর। চেন্নাইয়ের এমএ চিদম্বরম স্টেডিয়ামে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। চেন্নাইয়ের মন্থর উইকেটে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের চমকে দেন হার্শাল।

default-image

মুম্বাইকে দল নিয়ে খুব একটা পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে দেখা যায় না। নিয়মিত ওপেনার কুইন্টন ডি কক কোয়ারেন্টিনে থাকায় আজ কিছুটা পরিবর্তন করতে হলো। ওপেনার হিসেবে রোহিতের সঙ্গে নামেন অস্ট্রেলীয় ওপেনার ক্রিস লিন। মন্থর উইকেটে তাঁর ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও সেটি আজ খুব একটা বোঝা গেল না। রোহিতকে শুরুতে লিনের ভুলেই রান আউট হন, কিন্তু এরপর লিনের ৩৫ বলে ৪৯ রানই মুম্বাই ইনিংসের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। তিনে নামা সূর্যকুমার যাদবের সঙ্গ পেয়েছেন লিন। ২৩ বলে ৩১ রানের ইনিংসে ভালোই খেলছিলেন সূর্যকুমার।

ইনিংসের শুরুতেই বেঙ্গালুরু অধিনায়ক কোহলি বলেছিলেন, ‘এই উইকেটে বল যত পুরোনো হবে, ততই খেলা কঠিন হবে।’ মুম্বাইয়ের ইনিংসের মাঝপথে যেন কোহলির কথাটাই সত্যি হয়। প্রথম ১০ ওভারে ১ উইকেট ৮৬ রান করা মুম্বাই শেষ পর্যন্ত একে একে উইকেট হারিয়ে থামে ৯ উইকেটে ১৫৯ রানে।

default-image

যার কৃতিত্বটা দিতে হয় হার্শালকে। ডেথ ওভারে ভয়ঙ্কর হতে পারতেন মুম্বাইয়ের হার্দিক পান্ডিয়া, কিন্তু হার্শাল মৃদু রিভার্স সুইং কাজে লাগিয়ে ১০ বলে ১৩ রান করা হার্দিককে আউট করেন। ১৯ বলে ২৮ রান করা ঈশান কিষানকে আউট করে আরেক ধাক্কা দেন মুম্বাইয়ের দ্রুত রান তোলার সম্ভাবনায়। কাইরন পোলার্ড, ক্রুনাল পান্ডিয়ারাও হাত খুলতে পারেননি হার্শালের বোলিংয়ে। শেষ পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম ৫ উইকেট নিয়ে মাঠ ছাড়েন ৩০ বছর বয়সী হার্শাল।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন