রোববার সকালে হাসপাতাল ছাড়ার সময় সৌরভ গাঙ্গুলী
রোববার সকালে হাসপাতাল ছাড়ার সময় সৌরভ গাঙ্গুলীছবি: এএফপি

২৭ জানুয়ারি হঠাৎই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলীকে। বুকে হঠাৎ ব্যথা হওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরদিনই হৃদ্‌যন্ত্রে দুটি স্টেন্ট পরানো হয়। আজ পুরো সুস্থ হয়েই বাড়ি ফিরেছেন তিনি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, বিসিসিআইয়ের প্রধান এখন পুরোপুরি সুস্থ।

২ জানুয়ারি সকালে বাড়ির ট্রেডমিলে দৌড়ানোর সময় বুকে ব্যথা হওয়ায় প্রথম সৌরভকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। সে সময় তাঁর হৃদ্‌যন্ত্রের ধমনিতে দুটি ব্লক ধরা পড়ে। প্রথম দফাতেই তাতে একটি স্টেন্ট পরানো হয়েছিল। অন্য স্টেন্টটি পরে পরানো হবে বলে জানানো হয়েছিল।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সৌরভ গাঙ্গুলী এ মুহূর্তে পুরোপুরি সুস্থ। তবে তাঁকে বিশ্রামে থাকতে হবে।

default-image
বিজ্ঞাপন

২ জানুয়ারি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর ভারতের বিখ্যাত হৃদ্‌রোগ বিশেষজ্ঞ দেবী শেঠি দেখতে এসেছিলেন সৌরভকে। সে সময় তিনি বলেছিলেন, সঠিক সময় হাসপাতালে আসাতেই বড় কোনো বিপদ হয়নি তাঁর। তিনি জানিয়েছিলেন, জীবনের একটা পর্যায়ে হৃদ্‌যন্ত্রের ধমনিতে ব্লক হওয়া খুব স্বাভাবিক ব্যাপার।

৪৮ বছর বয়সী সৌরভ খেলা ছেড়েছেন ২০০৮ সালে। ১৯৯২ সালে ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল সৌরভের, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, অস্ট্রেলিয়ার মাঠে। মাঝে দীর্ঘ চার বছরের বিরতি। তবে ১৯৯৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডসে টেস্ট অভিষেক তাঁকে পাদপ্রদীপের আলোয় নিয়ে আসে। পরপর দুই টেস্ট সেঞ্চুরি করে তিনি নিজেকে ভারতীয় দলে স্থায়ী আসনে বসান।

২০০০ সালের নভেম্বরে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে শুরু হয় তাঁর, ওয়ানডের অধিনায়কত্ব অবশ্য পেয়েছিলেন আগেই। অনেকেই বলেন, ভারতীয় ক্রিকেট দলের আজকের ভয়ডরহীন চেহারাটা সৌরভের হাত দিয়েই হয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সফল এ অধিনায়ক প্রশাসক হিসেবেও সফল। প্রথমে তিনি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) সভাপতি হন। ২০১৯ সালের অক্টোবরে বিসিসিআইয়ের সভাপতি হিসেবে পথচলা শুরু করেন তিনি।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন