নাসির হোসেন এবারও ফিটনেস পরীক্ষায় পাস করতে পারেননি।
নাসির হোসেন এবারও ফিটনেস পরীক্ষায় পাস করতে পারেননি।ফাইল ছবি: প্রথম আলো

ফিটনেস টেস্টের বৈতরণি নাসির হোসেন যেন কিছুতেই পার হতে পারছেন না! গত বছর জাতীয় লিগের আগে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হতে পারেননি নাসির। গত এক বছরে ফিটনেসে বিশেষ উন্নতি হয়নি তাঁর; বরং হয়েছে অবনতি, সেটিই দেখা গেল আজকের ফিটনেস টেস্টে। এবারও ব্যর্থ নাসির।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ড্রাফটে নাম তুলতে হলে অবশ্যই পাস করতে হবে বিসিবির ফিটনেস পরীক্ষায়। বিসিবির এই পরীক্ষার মানদণ্ড ধরা হয়েছে ১১। আজ বিপ টেস্টে নাসির পেয়েছেন সর্বনিম্ন স্কোর ৮.৫। গতবার তবুও ৯-এর ঘরে পৌঁছতে পেরেছিলেন ২৮ বছর বয়সী স্পিনিং অলরাউন্ডার। আজ দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দিয়ে পাস করতে পারেননি আরেক স্পিনার সোহাগ গাজী।

বিজ্ঞাপন
বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ড্রাফটে নাম তুলতে হলে অবশ্যই পাস করতে হবে বিসিবির ফিটনেস পরীক্ষায়। পরশু রাজধানীর একটি হোটেলে হবে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টির ড্রাফট।

এবার অবশ্য বেশির ভাগ ক্রিকেটারই ফিটনেস পরীক্ষায় ভালো করেছেন। বিশেষ করে অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা খুবই ভালো করেছেন। আবদুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফীসরা ১১-এর ওপর স্কোর গড়েছেন। কাল ৯০ শতাংশ ক্রিকেটার ১১-এর ওপর স্কোর করেছেন। আজকের পরীক্ষায় অবশ্য তুলনামূলক খারাপ করেছেন ক্রিকেটাররা। আজ প্রায় ৬৫ শতাংশ ক্রিকেটার পেয়েছেন ১১-এর ওপর স্কোর। সর্বোচ্চ ১৩.৬ পেয়েছেন পেসার মেহেদী হাসান।

default-image

দুই দিন ধরে চলা এই ফিটনেস পরীক্ষায় ছিলেন না সাকিব আল হাসান। সাকিবের পরীক্ষা দেওয়ার কথা কাল। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ক্রিকেটার, বিসিবির তত্ত্বাবধানে থাকা জাতীয় দল, এইচপির খেলোয়াড়, সব মিলিয়ে শতাধিক ক্রিকেটার থাকছেন ১২ তারিখের ড্রাফটে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ড্রাফটের কাজ তাঁরা প্রায় চূড়ান্ত করেছেন। পরশু রাজধানীর একটি হোটেলে হবে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টির ড্রাফট।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0