default-image

জফরা আর্চার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন। অসাধারণ এক স্পেলে মামুলি ১৯৯ রানের পুঁজি নিয়েই সাউদাম্পটনে জয়ের হাসি হাসতে চেয়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু জার্মেইন ব্ল্যাকউডের দুর্দান্ত ইনিংস আর অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের দৃঢ়তায় দিনটা সফরকারীদেরই থাকল। ইংল্যান্ডকে ৪ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ শুরু করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আর্চারের ভয়ংকর প্রথম স্পেলটা সামলে নিয়ে দুবার জীবন ফিরে পাওয়া ব্ল্যাকউড প্রায় একাই টেনে নিয়েছেন দলকে। জয় থেকে মাত্র ১১ রান দূরত্বে এসে জেমস অ্যান্ডারসনের হাতে ধরা পড়েন ৯৫ রানে। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটা একটুর জন্য হাতছাড়া হলেও জয় পেতে কোনো অসুবিধা হয়নি ব্ল্যাকউডের। অধিনায়ক হোল্ডারকে (১৪*) সঙ্গী করে দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দিয়েছেন ইনিংসের শুরুতে আর্চারের বলে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়া জন ক্যাম্পবেল (৪*)। 

এই টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করা হোল্ডারের কাছে এ জয় জয়ের চেয়েও বেশি, 'দল হিসেবে এটা আমাদের সেরা জয়গুলোর একটি।' আগের দিন প্রভাব বিস্তার করা ইংল্যান্ডের ইনিংসে ধ্বস নেমেছিল হঠাৎ করে। ৩ উইকেটে ২৪৯ রান তোলা দলটি কিনা ৩০ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে! সেটাই জয়টা সহজ করে দিয়েছে উইন্ডিজের। হোল্ডারের চোখে তাই চতুর্থ দিনটাই টেস্টের সেরা, 'আমার কাছে টেস্ট ক্রিকেটের সেরা দিন ছিল গতকাল (শনিবার)। খুব কঠিন , পরিশ্রমের দিন ছিল। বোলাররা সর্বোচ্চ দিয়েছে। যখনই কাউকে বল করতে বলেছি, তারা এসে সর্বোচ্চ দিয়েছে।'

ওদিকে জো রুটের বদলে দলের নেতৃত্ব দেওয়া বেন স্টোকস প্রথম ইনিংসে মাত্র ২০৪ রানে গুটিয়ে যাওয়াকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে দেখছেন, 'প্রথমেই বলে নিই আবারও মাঠে ফিরতে পারা ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এটা অন্যরকম এক অভিজ্ঞতা। প্রথম ইনিংসে আরও রান পেলে ভালো লাগত। আমরা বেশ ভালো অবস্থানে ছিলাম, কিন্তু নিজেদের ইনিংসটাকে কাজে লাগাতে পারিনি।'

দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৫ রানে ৫ উইকেটসহ ম্যাচে ৯ উইকেট পাওয়া উইন্ডিজ ফাস্ট বোলার শ্যানন গ্যাব্রিয়েলই হয়েছেন ম্যাচ সেরা।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন