default-image

ফাস্ট বোলারের দারুণ কোনো আউটসুইঙ্গার। ব্যাটসম্যান সামনের পায়ে এসে বলটা ঠেকানোর চেষ্টা করলেন। কিন্তু ব্যাটের মাঝের অংশে নয়, বল লাগল ব্যাটের কানায়। চলে গেল প্রথম কিংবা দ্বিতীয় স্লিপে। দারুণ ক্যাচ! দারুণ ইয়র্কার কিংবা ইনসুইঙ্গারের ব্যাটসম্যানের স্টাম্প উপড়ে ফেলার পর সম্ভবত যেকোনো ফাস্ট বোলারের স্বপ্নের উইকেট এটি।

সে ক্ষেত্রে বলা যায়, পাকিস্তানের ফাস্ট বোলারদের স্বপ্নটা ইদানীং পূরণ হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। তাদের স্পিনারদেরও মুখ গোমড়া হওয়ার কোনো কারণ নেই, ক্যাচ তাঁদের বলেও ধরা হচ্ছে বেশ। আর বাংলাদেশের বোলারদের এদিক থেকে হতাশাই বেশি জুটছে। স্লিপে ক্যাচে সাফল্যের পরিসংখ্যান যে তা-ই বলে। ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সময়ে টেস্ট ক্রিকেটে স্লিপে ক্যাচের সাফল্যের হারে সবচেয়ে এগিয়ে পাকিস্তান, সবচেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ।

সাউদাম্পটন টেস্টের প্রথম দিনে আজ এক পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের স্লিপে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যাওয়ার পরই হিসাবটা এসেছে আলোচনায়। পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলী আজ দুবার স্লিপে ক্যাচ দিয়ে বেঁচেছেন। প্রথমবার স্টুয়ার্ট ব্রডের বলে প্রথম স্লিপে তাঁর ক্যাচ ফেলেছেন ডম সিবলি, পরে ক্রিস ওকসের বলে দ্বিতীয় স্লিপে আবার আবিদ আলীরই ক্যাচ ফেলেন রোরি বার্নস। বৃষ্টিতে খেলা থামার আগে সেই আবিদ অপরাজিত আছেন ৪৯ রানে, পাকিস্তানের রান ২ উইকেটে ৮৫। ক্রিজে অন্য অপরাজিত ব্যাটসম্যান বাবর আজম (৭*)।

আবিদ আলী দুবার বাঁচার পর স্লিপে ক্যাচ ধরায় ইংল্যান্ডের অবস্থান বের করেছে ক্রিকেটভিত্তিক পরিসংখ্যানের টুইটার পেজ দ্য ক্রিকভিজ অ্যানালিস্ট। সেই তালিকাই বাংলাদেশের স্লিপে ক্যাচ ধরার দুর্বল চিত্রটা তুলে এনেছে আরও বেশি করে। ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সময়ে স্লিপে ক্যাচে বাংলাদেশের সাফল্যের হার মাত্র ৬৯ শতাংশ—টেস্ট খেলুড়ে ১২ দেশের মধ্যে যা সবচেয়ে কম! এমনকি টেস্টে নবীনতম দুই দেশ আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডও এখানে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে। আফগানিস্তানের স্লিপে ক্যাচে সাফল্যের হার ৭৫ শতাংশ, আয়ারল্যান্ডের ৭৩ শতাংশ।

এদিক থেকে সবচেয়ে এগিয়ে পাকিস্তান। স্লিপে ক্যাচে পাকিস্তানের সাফল্যের হার ৮৯ শতাংশ। ‘লেটার মার্কস’ বা ৮০ শতাংশের ওপরে সাফল্যের হার পাঁচটি দেশের—পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কা। আর যাদের স্লিপে ক্যাচে ব্যর্থতার সূত্র ধরে এই আলোচনা, সেই ইংল্যান্ড তালিকায় নিচের দিক থেকে বাংলাদেশের ওপরে, তাদের সাফল্যের হার ৭৩ শতাংশ।

টেস্টে স্লিপের ক্যাচে সাফল্যের হার (২০১৮ সাল থেকে):

সাফল্যের হার

দল

৮৯%

পাকিস্তান

৮৮%

নিউজিল্যান্ড

৮৭%

দক্ষিণ আফ্রিকা

৮৪%

অস্ট্রেলিয়া

৮২%

শ্রীলঙ্কা

৭৮%

ভারত

৭৭%

ওয়েস্ট ইন্ডিজ

৭৫%

আফগানিস্তান

৭৫%

জিম্বাবুয়ে

৭৩%

আয়ারল্যান্ড

৭৩%

ইংল্যান্ড

৬৯%

বাংলাদেশ

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0