default-image

বিগ ব্যাশে গতির ঝড় তুলে অস্ট্রেলিয়াতে বিখ্যাত হয়ে গেছেন। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি অভিষেকও হয়ে গেছে পাকিস্তানের হারিস রউফের। নিয়মিত ৯০ মাইল গতিতে বোলিং করতে পারেন, বাউন্সও আছে ভালো। অল্প কদিনেই সমর্থক জুটিয়ে ফেলেছেন বেশ। এমনই এক ভক্ত পরশু দেখা পেয়েছিলেন হারিসের। 

মুহাম্মদ শাহাব ঘৌরি নামের ভক্ত নিজেও ক্রিকেটার। জাতীয় দলের এক ক্রিকেটারের সঙ্গে দেখা হওয়ার পর সুযোগ কাজে লাগাতে জানেন ঘৌরি। চট করে হারিসকে রাজি তোলালেন সেলফি তোলার জন্য। সেলফি তুলে খুশি মনে বাসায়ও এলেন। এর পরই ঘটল বিপত্তি।

ছবি-টবি তোলার পর বাসায় এসে প্রশ্ন জাগল ঘৌরির মনে, কেন দলের সঙ্গে ইংল্যান্ডে না গিয়ে পাকিস্তানে ঘুরছেন হারিস? তাই একটু গুগল করলেন। বাকিটা ঘৈরির ফেসবুক পোস্ট থেকেই জেনে নেওয়া যাক,'আজ (পরশু) এফ-সিক্সে হারিস রউফকে দেখলাম, সেলফিও তুললাম। পরে গুগল করলাম কেন তিনি ইংল্যান্ড সফরে দলে ডাক পাননি। দেখি তাঁর এখনো করোনা আছে। সর্বনাশ!!'

ইংল্যান্ডের জন্য প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়া হারিস একটি টেস্টে পজেটিভ হওয়ার পর আরেকটি টেস্ট দিয়েছিলেন। সেটা আবার নেগেটিভ ফল এসেছিল। তবু টানা দুটি নেতিবাচক ফল না পাওয়ায় ইংল্যান্ডের পথে উড়াল দিতে পারেননি। ২২ জুনের পর আরও চারবার করোনা পরীক্ষা করেছিলেন হারিস। শরীরে কোনো উপসর্গ নেই তাঁর, কিন্তু প্রতিবারই পরীক্ষার ফল পজেটিভ এসেছে। এমন অবস্থায় তাঁর সঙ্গে সেলফি তুলে আতঙ্কে থাকতেই পারেন এই ভক্ত।

পরে ইন্ডিপেন্ডেন্ট উর্দুর সঙ্গে কথোপকথনে ওই ভক্ত জানিয়েছেন সেদিন এফ-সিক্সে (ইসলামাবাদের) বাস্তবে কী হয়েছিল, 'হারিস এটিএম বুথের বাইরে ছিলেন এবং মাস্ক পরা ছিলেন। সামাজিক দূরত্বের সব নিয়মই মেনে চলছিলেন। তবু আমি তাঁকে চিনে ফেলি। আমার অনুরোধে হারিস মাস্ক কয়েক সেকেন্ডের জন্য খোলেন এবং সেলফি তোলেন। আমরা দূরত্ব বজায় রেখেই সেলফি তুলেছি। আমি ফেসবুকে পোস্টটা করেছি মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য।'

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই পোস্ট দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে। ভারতীয় অধিকাংশ সংবাদমাধ্যম এ নিয়ে প্রতিবেদন করেছে। সেখানে কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পরও হারিস এভাবে কেন বাইরে ঘুরছেন, এ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। এই ডামাডোলের ফাঁকেই কাল নিজেকে করোনামুক্ত ঘোষনা করেছেন হারিস। ঘৌরি একের পর এক পোস্ট করে সে খবরও সবার কাছে পৌঁছে দিয়েছেন। হাজার হলেও নিজেকে সুরক্ষিত প্রমাণ করতে হবে না!

পিসিবি জানিয়েছে সোমবার ও কাল বুধবার দুবার পরীক্ষাতেই নেগেটিভ ফলে এসেছে হারিসের। ফলে এ সপ্তাহের শেষেই ইংল্যান্ডে যেতে পারবেন হারিস। আগামী ৫ আগস্ট ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরু পাকিস্তানের।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন