default-image
এশিয়া কাপ বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) বলছে গাঙ্গুলীর কথা ভিত্তিহীন


কাল ইনস্টাগ্রামে এক লাইভ শোতে এশিয়া কাপ বাতিলের ঘোষণা দেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, ‘এশিয়া কাপ বাতিল, যেটা সেপ্টেম্বরে হওয়ার কথা ছিল।’
এদিকে এশিয়া কাপের আয়োজক দেশ পাকিস্তান গাঙ্গুলীর মন্তব্যকে পাত্তা দিচ্ছে না। কারণ, এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) তরফ থেকে এ ব্যাপারে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি।

এসিসি ও বিসিবির প্রধান নাজমুল হাসান বর্তমানে ইংল্যান্ডে চিকিৎসাধীন। এশিয়া কাপের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারেন একমাত্র তিনিই। কাল প্রথম আলোকে বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে এটি নিয়ে এখনো কিছু শুনিনি। বিসিবি সভাপতি (তিনি এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলেরও সভাপতি) লন্ডনে আছেন। তাঁর আজ অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা। এ মুহূর্তে তাঁর সঙ্গে কথা বলার সুযোগ নেই। তবে আমরাও শুনেছি টুর্নামেন্টটা এ বছর যথাসময়ে আয়োজন নিয়ে যথেষ্ট সংশয় আছে।’

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়াপ্রধান সামিউল হাসানও একই কথা বললেন, ‘সৌরভ যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা কোনো প্রভাব ফেলবে না। যদি সে প্রতি সপ্তাহে এমন মন্তব্য করে, তাহলে কথার কোনো মূল্য থাকে না। এশিয়া কাপের সিদ্ধান্ত এসিসি নেবে। ঘোষণাটা একমাত্র এসিসির প্রধান নাজমুল হাসান দিতে পারেন। আমার জানা মতে, আগামী এসিসি বৈঠকের দিনক্ষণ এখনো নির্ধারণ হয়নি।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েও ইতিবাচক নন সৌরভ। কাল তিনি বলেছেন, 'টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত হওয়ার কথাও তাড়াতাড়িই জানা যাবে। কেননা, সব দেশ আইসিসির কাছে নির্দেশিকা চাইছে। আমরা ইতিমধ্যেই জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে এসে পৌঁছেছি। আমার মন বলছে টি-২০ বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব নয়।'

এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হলে আইপিএলের দুয়ার খুলে যাবে ভারতের। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আইপিএল আয়োজন করতে চাইবে ভারত। এ প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, 'আমরা আইপিএল আয়োজনের জন্য সব রকম চেষ্টা করব। এটা ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। চেষ্টা করব টুর্নামেন্ট ভারতেই আয়োজন করার।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন