বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিজের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য, ‘আমি বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখলাম, তারা বলছে যে আমার নাকি হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। এটা ভুল। আমি এ ব্যাপারটা পরিষ্কার করতে চাই। আমার আসলে হার্ট অ্যাটাক হয়নি। চিকিৎসকের কাছে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গিয়েছিলাম। সেখানে আমার অ্যানজিওগ্রাফি করা হয়। অ্যানজিওগ্রাফিতে আমার হৃদ্‌যন্ত্রের একটি ধমনিতে ব্লক ধরা পড়লে আমার অ্যানজিওপ্লাস্টি করা হয়। আমি ১২ ঘণ্টা পরই বাড়ি ফিরে এসেছি। এখন বাড়িতেই বিশ্রাম নিচ্ছি।’

নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই ইনজামাম সবাইকে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি সবাইকে নিজেদের হৃদ্‌যন্ত্রের প্রতিও খেয়াল রাখার কথা বলেছেন, ‘আমি চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলাম, কারণ বুকে হালকা অস্বস্তি বোধ করছিলাম আমি। অস্বস্তিটা হৃদ্‌যন্ত্রের আশপাশেও ছিল না। আমি যদি সময়মতো হাসপাতালে না যেতাম, তাহলে চিকিৎসকেরা বলেছেন, আমি বড় বিপদে পড়তেই পারতাম।’

default-image

ইনজামাম–উল–হকের হার্ট অ্যাটাক হয়েছে, এমন খবর গণমাধ্যম দিয়েছিল আসলে তাঁর এক ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলে। খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন ইনজামামের অগণিত ভক্ত–অনুরাগী ও বন্ধুবান্ধব। ওয়াসিম আকরাম, শচীন টেন্ডুলকার, হার্শা ভোগলেরা টুইট করে তাঁর সুস্বাস্থ্য কামনা করেন। তাঁর প্রতি শুভকামনা জানান।

টেন্ডুলকার লিখেছিলেন, ‘তুমি সব সময়ে খুব শান্ত, কিন্তু লড়াকু। আমার আশা ও প্রার্থনা, তুমি শিগগির এই পরিস্থিতি সামলে আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসবে।’

বন্ধু ওয়াসিম আকরামের টুইটে ছিল একরাশ উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা, ‘প্রিয় ইনজি, দারুণ একটা হৃদয় তোমার। মনে হচ্ছে, কোনো অশুভ দৃষ্টি নিশ্চয়ই তোমার হৃদয়কে ছারখার করতে চাইছে। আমি খুব উদ্বিগ্ন যে তোমার মতো সিংহহৃদয়ের মানুষকে এত কষ্ট পেতে হচ্ছে। প্রার্থনা করছি, তুমি শিগগির সুস্থ হয়ে ওঠো, যেন চমৎকার হৃদয় দিয়ে তুমি আবার সবার মন জয় করো। প্রিয় বন্ধু, নিজের প্রতি সর্বোচ্চ যত্ন নাও। শিগগিরই দেখা হচ্ছে!’

এখন ইনজামামের ভিডিও বার্তার পর সবার স্বস্তি ফিরবে—এ কথা বলাই যায়।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন