উদ্বোধনী জুটিতে ১৪৩ রান করেছেন এভিন লুইস (বাঁয়ে) ও শাই হোপ।
উদ্বোধনী জুটিতে ১৪৩ রান করেছেন এভিন লুইস (বাঁয়ে) ও শাই হোপ।ছবি: এএফপি

কী শুরুটাই না পেয়েছিল শ্রীলঙ্কা! কিন্তু ওপেনিংয়ে সেঞ্চুরি জুটির পর পথ হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর সেখান থেকে সফরকারী শ্রীলঙ্কাকে ঘুরে দাঁড়াতে দেয়নি স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২৩২ রানে লঙ্কান ইনিংস থামিয়ে সেই রান হেসেখেলে তাড়া করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওয়ানডে দলে ফেরা শাই হোপের ম্যাচ জেতানো সেঞ্চুরিতে আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে প্রথম পয়েন্টের দেখা পেল ক্যারিবীয়রা। কাল অ্যান্টিগায় তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ ৮ উইকেটে জিতে সিরিজে এখন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে এগিয়ে ১-০ ব্যবধানে। তিন ওভার হাতে রেখে ম্যাচটা জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

দুই লঙ্কান ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও দানুস্কা গুনাতিলকা ক্রিজে থাকা অবস্থায় কেউ ওয়েস্ট ইন্ডিজের এমন সহজ জয় চিন্তা করতে পারেনি। দুজনই খেলছিলেন স্বাচ্ছন্দ্যে। উইকেটেও ছিল না তেমন কোনো রহস্য। কিন্তু নিজেদের ভুলেরই মাশুল দেয় লঙ্কানরা। ২০তম ওভারে কাইরন পোলার্ডের বোলিংয়ে আলগা শট খেলে কট বিহাইন্ড হন লঙ্কান অধিনায়ক করুনারত্নে।

বিজ্ঞাপন
default-image

পোলার্ডের পরের ওভারে অবস্ট্রাকটিং দ্য ফিল্ড হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় দারুণ খেলতে থাকা গুনাতিলকা। সব সংস্করণ মিলিয়ে অবস্ট্রাকটিং দ্য ফিল্ড আউট হওয়া ১১তম ব্যাটসম্যান এখন গুনাতিলকা। দুই ওপেনারই ফিফটি করে মাঠ ছাড়েন।

এরপর তালগোল পাকিয়ে বসে লঙ্কান মিডল অর্ডার। প্রথমে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস রান আউট হন। এরপর পাতুম নিশাঙ্কা। দীনেশ চান্ডিমাল আউট হন ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের নিরীহ একটি বলে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে। বিনা উইকেটে ১০৫ থেকে দেখতে না দেখতেই ৫ উইকেটে ১৫১ রান শ্রীলঙ্কার। এরপর ওয়ানডে অভিষিক্ত আশেন বান্দারা বোলারদের সঙ্গে লড়ে ৫০ করেন, দলের রানও সেই সঙ্গে দুই শ ছাড়ায়। কিন্তু অ্যান্টিগার উইকেটের জন্য ২৩২ রান যথেষ্ট ছিল না।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনার এভিন লুইস ও শাই হোপ সেই ভুল করেননি যা লঙ্কান ওপেনাররা করেছেন। ওপেনিংয়ে ১৪৩ রান যোগ করে লুইস আউট হন ৬৫ রানে। দুষ্মন্ত চামিরার দুর্দান্ত ইয়র্কারে বোল্ড হন তিনি। টিকে ছিলেন হোপ। এই ইনিংসের আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গত তিন ইনিংসে হোপের রান ছিল ১১৫, ৫১, ৭২।

default-image

সেই হোপ কাল পেয়ে যান ক্যারিয়ারের দশম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। জয় থেকে মাত্র ১৮ রান দূর থাকা অবস্থায় চামিরার আরেকটি দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বিদায় নেন ১১০ রান করা হোপ। ১৩৩ বলের ইনিংসে ১২টি চার ও ১টি ছক্কা মেরেছেন বাংলাদেশ সফরে না আসা হোপ। তাঁর বিদায়ের পর ড্যারেন ব্রাভো ও জেসন মোহাম্মদ বাকি কাজ শেষ করে আসেন। চামিরার গতিময় আক্রমণাত্মক বোলিং ছাড়া লঙ্কানদের বোলিংও বেশ নির্বিষ মনে হয়েছে।

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ আগামীকাল একই মাঠে। ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন