বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রায় দুই বছরের বেশি সময় পর আবারও অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে সুযোগ পেয়েই শতক তুলে নিলেন উসমান খাজা। অন্যভাবেও বলা যায়, অস্ট্রেলিয়ায় ১০৬৩ দিন আগে খেলা শেষ টেস্টে শতরান করার পর আবারও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে দলে সুযোগ পেয়েই শতক পেলেন তিনি। আরও আছে, সিডনিতে ২০১৮ সালে নিজের খেলা সর্বশেষ টেস্টেও শতরান করেছিলেন খাজা। আজ আবার সিডনিতে ফিরেই দেখা পেলেন শতরানের।

default-image

অ্যাশেজে সিডনি টেস্টে আজ দ্বিতীয় দিনে খাজার ২৬০ বলে ১৩৭ রানের ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেটে ৪১৬ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ইংল্যান্ড বিনা উইকেটে ১৩ রানে শেষ করেছে দ্বিতীয় দিনের খেলা। অস্ট্রেলিয়া চাইলে আরও বেশি সময় ব্যাট করতে পারত।

কিন্তু দিনের শেষ ভাগে অন্তত ২০ মিনিট সময় ইংল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে দ্রুত দুই-একটি উইকেট তুলে নেওয়ার অঙ্ক কষেছিলেন অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার হাসিব হামিদ ও জ্যাক ক্রলির দৃঢ়তায় কামিন্স অঙ্কটা মেলাতে পারেননি।

১১ বছর আগে এই সিডনিতেই টেস্ট অভিষেক হয়েছিল উসমান খাজার। ঘরের মাঠে পরিবারের সামনে নবম টেস্ট শতক তুলে নেওয়ার মধ্য দিয়ে সাদা জার্সিতে প্রত্যাবর্তনও রাঙালেন তিনি। সিডনিতে এটি খাজার দ্বিতীয় টেস্ট শতক। এ মাঠে অ্যাশেজে নিজের সর্বশেষ ইনিংসেও (২০১৮) শতক তুলে নিয়েছিলেন খাজা।

তিনি পাঁচে নেমে শতক তুলে নেওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ার চার ব্যাটসম্যান—ডেভিড ওয়ার্নার, মার্কাস হ্যারিস, মারনাস লাবুশেন ও স্টিভ স্মিথ ভালো শুরু পেয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। ৩০ রান করা ওয়ার্নার ও ৬৭ রান করা স্মিথকে তুলে নেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। ৩৮ রান করা হ্যারিসের উইকেটটি জিমি অ্যান্ডারসনের এবং লাবুশেনকে (২৮) তুলে নেন মার্ক উড।

স্মিথের সঙ্গে ১১৫ রানের জুটিতে বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দেন খাজা। এরপর অ্যালেক্স ক্যারি, কামিন্স ও মিচেল স্টার্কের সঙ্গে গড়েছেন যথাক্রমে ৪৩, ৪৬ ও ৬৭ রানের জুটি। ব্রডের বলে খাজা বোল্ড হয়ে ফেরার দুই ওভার পরই ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া (১৩৪ ওভার)।

সিডনি টেস্ট দিয়ে ইংল্যান্ড দলে ফিরেই ৫ উইকেটের দেখা পেলেন ব্রড। অ্যাডিলেডে দ্বিতীয় টেস্টটি খেলার পর তৃতীয় টেস্টে বাদ পড়েন তিনি। সিরিজে আপাতত ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন