বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বছরের শুরুটা ছিল বেশ ইতিবাচক। খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু টেস্ট সিরিজে বড় এক ধাক্কা খেয়েছে বাংলাদেশ। স্পিন–সহায়ক উইকেটেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় সারির দল বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করেছে টেস্ট সিরিজে। নিউজিল্যান্ড সফর বরাবরের মতো এবারও বাংলাদেশকে ভুগিয়েছে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দুই সিরিজেই হেরে ফিরেছে বাংলাদেশ। এপ্রিলে শ্রীলঙ্কা সফরেও হেরে এসেছে বাংলাদেশ।

মে মাসে ওয়ানডে সিরিজেই বাংলাদেশ এর বদলা নিয়েছে। বছরের মাঝপথ পেরোতেই বাংলাদেশের জয়যাত্রা শুরু হয়েছে। জিম্বাবুয়েতে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার পর ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। যদিও উইকেটের সর্বোচ্চ সুবিধা নিয়ে সেই দুই সিরিজ জয় বিশ্বকাপে কাল হয়েছে বাংলাদেশের। আরও একবার সুপার টুয়েলভে কোনো জয় ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে বাংলাদেশ। হতাশার বছর শেষ হয়েছে পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই সিরিজ হারে।

কিন্তু এর মাঝেই বাংলাদেশ ২০২১ সালে ছয়টি সিরিজ জিতেছে। এর মধ্যে তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এর আগে কোনো পঞ্জিকাবর্ষে বাংলাদেশ কখনো এতগুলো সিরিজ জেতেনি। এর আগে সর্বোচ্চ দুবার বছরে পাঁচটি সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

প্রথমবার বাংলাদেশ বছরে পাঁচটি সিরিজ জিতেছিল ২০০৯ সালে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেই ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জয়ের (দেশের বাইরে প্রথম) আগে–পরে আরও চারটি ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ।

এরপর এমন সাফল্য ঘেরা বছর এসেছিল ২০১৮ সালে। এবারও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচটি সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। তবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে সিরিজ জেতার পাশাপাশি বাকি চার সিরিজেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এবং এ বছরই প্রথমবারের মতো টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি—তিন সংস্করণেই অন্তত একটি সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ।

এক বছরে অন্তত চারটি সিরিজ জিতেছে আরও দুবার। ২০০৬ সালে প্রথম ঘটেছিল সে ঘটনা। ২০০৭ বিশ্বকাপের কথা চিন্তা করে দলের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে বোর্ড একের পর এক সিরিজ আয়োজন করেছিল। সে সুবাদে জিম্বাবুয়ে, কেনিয়া ও স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে চারটি ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। ২০১৫ সালের সাফল্য সে তুলনায় অনেক বেশি তৃপ্তিদায়ক। সে বছর পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবুয়েকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন