বিজ্ঞাপন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণের বিশ্ব আসরে এখন খেলে ১৬টি দল। এ বছরের ও পরের বছরের দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও হবে ১৬ দলকে নিয়েই। ক্রিকেটকে বিশ্বময় ছড়িয়ে দেওয়ার ভাবনাতেই দল বাড়ানোর এই চিন্তা আইসিসির। পরিকল্পনামতো সবকিছু এগোলে ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পর্বে চার গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে ২০ দল। প্রতি গ্রুপে থাকবে পাঁচটি করে দল।

default-image

ক্রিকেটকে সারা বিশ্বে জনপ্রিয় করতে টি-টোয়েন্টিকেই উপজীব্য করেছে আইসিসি। এর আগে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দল বাড়ানো হয়েছে। আইসিসি অবশ্য ওয়ানডে বিশ্বকাপেও দল বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করছে। ১০ দলের বদলে ভবিষ্যতে ১৪ দল নিয়ে হতে পারে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ। এ ছাড়া অলিম্পিকে ক্রিকেটের অংশগ্রহণ ও ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ ফিরিয়ে আনার চিন্তাও করছে আইসিসি। যেসব দলের টেস্ট মর্যাদা নেই, তারা খেলত প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে।

সম্ভবত ২০৩২ অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে ক্রিকেট, যে অলিম্পিকের আয়োজক হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন শহর।

আইসিসির প্রধান নির্বাহীদের কমিটির (সিইসি) সাম্প্রতিক বৈঠকেই এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সেখানে দল বাড়ানো ও অন্যান্য বিষয়ে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে পূর্ণ সদস্যদেশগুলো নাকি এ ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাবই দেখিয়েছে।

ক্রিকেটকে অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টি সিইসিতে তুলেছিলেন ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের টম হ্যারিসন। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও অলিম্পিকে অংশ গ্রহণের ব্যাপারে সংকেত দিয়েছে।

সম্ভবত ২০৩২ অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে ক্রিকেট, যে অলিম্পিকের আয়োজক হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন শহর। এর আগে ২০২৮ লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে প্রদর্শনী ইভেন্ট হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা আছে ক্রিকেটের। কতটি দল অংশ নেবে, সে ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। অলিম্পিকে ক্রিকেট ঢুকলে সম্ভবত টি-টেন ক্রিকেটই হবে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন