২১৯০ কোটি টাকা ক্ষতির মুখে ইসিবি

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাস পাল্টে দিচ্ছে পৃথিবী। পাল্টে গেছে ক্রিকেটও। জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে হচ্ছে খেলা। মাঠে নেই দর্শক। তাই আয়ের খাতায়ও কলমের দাগ পড়ছে না সেভাবে। তার আগে তো টানা কয়েক মাস বন্ধ ছিল খেলা। স্বাভাবিকভাবেই ক্রিকেট বোর্ডগুলোয় এর প্রভাব পড়েছে।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) নিজেদের অবস্থাটা জানিয়ে দিল। ৬২ কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিয়েছে ইসিবি। এর পাশাপাশি করোনা মহামারিতে আর্থিক ক্ষতি আনুমানিক ২০০ মিলিয়ন বা ২০ কোটি পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২১৯০ কোটি টাকা)। এক বিবৃতিতে এসব কথা জানিয়েছে ইসিবি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইসিবির প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আধুনিক কালে ক্রিকেট সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে।’ ইসিবির ‘আর্থিক বিষয়াদি টেকসই করার পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে’ জানান তিনি। এর একটি পদক্ষেপ হিসেবে ২০ শতাংশ জনবল ছাঁটাই করা হবে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এই ২০ শতাংশের হিসেবে ৬২ কর্মীকে আর অত্যাবশ্যক মনে করছে না ইসিবি। এ নিয়ে আলোচনাও শুরু হয়েছে। এ ছাড়াও কিছু পদের ভূমিকা নমনীয় করা হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হ্যারিসন বলেন, ‘এর মধ্যেই ১০০ মিলিয়ন পাউন্ড লোকসান হয়েছে। আগামী বছরেও এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে সেটা ২০০ মিলিয়ন পাউন্ড হয়ে যাবে, সবার ধারণা এমনটাই ঘটবে।’গত মে মাসে সম্ভাব্য ক্ষতির পরিমাণ ৩৬ কোটির বেশি হওয়ার আশঙ্কা করেছিলেন হ্যারিসন। জো রুটদের সঙ্গে কী ঘটবে তা এখনো নিশ্চিত নয়।

খেলোয়াড়দের পরবর্তী চুক্তিপত্র নিয়ে এখন আলোচনা চলছে দুই পক্ষের। ‘হান্ড্রেড’ ক্রিকেট সংস্করণের তহবিলও কাটছাঁট করা হবে। ইসিবি আজ জানিয়েছে নারীদের টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়দের চুক্তি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আগামী বছর পর্যন্ত পরিবর্ধিত হবে। পুরুষ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের তহবিল ২০ শতাংশ কাটছাঁট হতে পারে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জনবল কমানো নিয়ে হ্যারিসনের ভাষ্য, ‘গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আমরা ইসিবির অবকাঠামো ও তহবিল মূল্যায়ন করেছি। লক্ষ্য অপরিবর্তিত রেখে তহবিল কমানোর চেষ্টা করছি আমরা। আর এই প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে ২০ শতাংশ জনবল কমানো, যার অধীনে ৬২ কর্মী ছাঁটাই করা হবে।’

হান্ড্রেড টুর্নামেন্ট থেকে বড় অঙ্কের অর্থ আয়ের স্বপ্ন দেখেছে ইসিবি। সংবাদমাধ্যমের মতে, ১১ মিলিয়ন পাউন্ড আয়ের হিসেব কষেছে ইংলিশ বোর্ড। কিন্তু ক্রিকেটের নতুন এ সংস্করণ পিছিয়ে ২০২১ সালে নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন