default-image

কিষানের খাতায় এরপর আর কোনো রান যোগ হয়নি। প্রোটিয়া পেসার লুঙ্গি এনগিডির করা দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে বোল্ড হয়ে যান ৭ বলে ১৫ রান করা ভারতীয় ওপেনার। তাঁর দলের রান তখন ২০।

কাগিসো রাবাদার করা তৃতীয় ওভারে একটি চার মারা রুতুরাজ গায়কোয়াড়ও শিকার হয়েছেন এনগিডির। চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে মিড অনে সহজ ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন। আর একটি বল হওয়ার পরই অবশ্য মাঠ ছাড়তে মাঠের সবাইকে। এরপর তো ড্রেসিংরুমে বন্দীই থাকতে হলো তাঁদের। সব মিলিয়ে ২১ বল খেলে ২ উইকেটে ২৮ রান করেছিল ভারত।

ভারতীয় দলের পরের মিশন আয়ারল্যান্ডে। ২৬ ও ২৮ জুন আইরিশদের বিপক্ষে দুটি টি-টোয়েন্টি খেলবে ভারতীয়রা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন