৩০ হাজার দর্শক নিয়ে হবে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট

মন ঠাসা গ্যালারি না হলেও কিছু দর্শক থাকতে পারে মেলবোর্নে এবারের বক্সিং ডে টেস্টে
মন ঠাসা গ্যালারি না হলেও কিছু দর্শক থাকতে পারে মেলবোর্নে এবারের বক্সিং ডে টেস্টে ছবি: ক্রিকইনফো
বিজ্ঞাপন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠে ফিরেছে গত জুলাইয়ে। ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ দিয়ে করোনা-বিরতি কাটিয়ে ক্রিকেট ফিরলেও মাঠে দর্শক ফেরেননি এখনো। এরপর যতগুলো সিরিজ হয়েছে বা সামনে হতে যাচ্ছে, তাতে দর্শক মাঠে রেখে খেলা হওয়ার কথা এখনো অন্তত শোনা যায়নি। সে ক্ষেত্রে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) একটা সাহসী সিদ্ধান্তই নিতে যাচ্ছে বলা যায়। এ বছর ভারতের বিপক্ষে বক্সিং ডে টেস্টে মেলবোর্নে ৩০ হাজার দর্শক রাখার কথা ভাবছে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

প্রতিবছর ২৬ ডিসেম্বর ‘বক্সিং ডে’ থেকে মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্ট খেলে অস্ট্রেলিয়া। এটা শুধু ঐতিহ্যই নয়, অস্ট্রেলিয়ানদের জন্য বড়দিনের পরের দিনে এক ধরনের ক্রিকেট উৎসবও। আর সেই উৎসবে দর্শক না থাকলে কী পূর্ণতা পায়!

কিন্তু করোনার কারণে এখন মাঠে দর্শক রেখে খেলা থেকে বিরত সব ক্রিকেট বোর্ডই। তবে অস্ট্রেলিয়া সাহস করছে কারণ, বক্সিং ডে টেস্ট এখনো কয়েক মাস বাকি। আর মেলবোর্ন যে রাজ্যে, সেই ভিক্টোরিয়ায় করোনা সংক্রমণ কমতে শুরু করেছে কিছুটা। গতকাল ভিক্টোরিয়ায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৪১ জন। গতকাল পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৬ হাজারের মতো। এর মধ্যে প্রায় ২২ হাজারই সুস্থ হয়ে গেছেন। ডিসেম্বর আসতে আসতে এই পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে বলেই মনে করছেন দেশটির স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়েই মেলবোর্নে দর্শক রেখে বক্সিং ডে টেস্ট খেলার এই ভাবনা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আরেকটা বড় কারণ, যত দ্রুত নতুন স্বাভাবিক জীবনে অভ্যস্ত হওয়া যায়, তত দ্রুত অর্থনৈতিক ক্ষতি পুষিয়ে ওঠা সম্ভব বলে মনে করছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। ভিক্টোরিয়া রাজ্য সরকারও তাই সব খেলাতেই কিছু কিছু দর্শক ফেরানোর কথা ভাবছে। প্রায় ১ লাখের বেশি ধারণক্ষমতার মেলবোর্ন স্টেডিয়ামে ৩০ হাজারের মতো দর্শক ঢোকার অনুমতি দিলে সামাজিক দূরত্বের নিয়মটাও মেনে চলা সম্ভব হবে বলে মনে করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

এমনিতেই করোনাকালে বিশাল ক্ষতির মুখে পড়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। করোনায় পিছিয়ে গেছে অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও। ভারতের আসছে সফর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার জন্য সেই ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার একটা বড় সুযোগ। সেই জন্য ওই সিরিজটা যতটা পারা যায় সাড়ম্বরে আয়োজন করতে চায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এখন পর্যন্ত যে পরিকল্পনা, তাতে অ্যাডিলেড ওভালে সিরিজের প্রথম টেস্ট হওয়ার কথা ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে। তারপর মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্ট। সিরিজের শেষ দুটি টেস্ট হতে পারে সিডনি ও ব্রিসবেনে। এই সপ্তাহেই আসছে গ্রীষ্মের পূর্ণাঙ্গ সূচি ঘোষণা করার কথা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন