মুমিনুল-লিটন মিলে দারুণ ব্যাটিং করেছেন।
মুমিনুল-লিটন মিলে দারুণ ব্যাটিং করেছেন। ছবি: প্রথম আলো

‘আমার মনে হয় ৩০০-৩৫০ রানের লক্ষ্য দিতে হবে’—টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে কাল ক্রিকইনফোতে জানিয়েছিলেন বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। সেদিক থেকে বাংলাদেশ সফল। আজ ৮ উইকেটে ২২৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ, চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয়ের জন্য দিয়েছে ৩৯৫ রানের লক্ষ্য। কিন্তু এই লক্ষ্যই কি যথেষ্ট হবে

রেকর্ড বলছে, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে চতুর্থ ইনিংসে এর চেয়ে বেশি রান তাড়া করে জেতেনি কোনো দল। তাড়া করে জয়ের পথে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড নিউজিল্যান্ডের, ২০০৮ সালের অক্টোবরে চতুর্থ ইনিংসে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩১৭ রান করেছিলেন কিউইরা।

বিজ্ঞাপন

তালিকায় এরপর আছে শ্রীলঙ্কা। তবে ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ২ উইকেটে ১৬৩ রান করতেই জয়ের দেখা পেয়ে গেছেন লঙ্কানরা। বলতে পারেন, বাংলাদেশ সেভাবে বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি সব সময়, পারলে নাহয় বড় লক্ষ্য তাড়া করে জয়ের রেকর্ড নিয়ে ঘাঁটাঘাটি করে ‘রেফারেন্স’ টানা যেত!

তা না টানা যাক, বাংলাদেশের দেওয়া ৩৯৫ রানের লক্ষ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভগ্নশক্তির এই দল পেরোতে পারবে কি না, সে বিশ্লেষণ তো চলতেই পারে। আজ চতুর্থ দিনে চা-বিরতি পর্যন্ত বিনা উইকেটে ১৮ রান ওয়েস্ট ইন্ডিজের। এখনো আজকের দিনে এক সেশন আর কাল পঞ্চম দিনের পুরোটাই বাকি আছে।

চার সেশনে বাংলাদেশ ১০ উইকেট নিতে পারবে, নাকি ওয়েস্ট ইন্ডিজ তুলে ফেলবে ৩৯৫ রান? শেষদিকে ১৭ রানের মধ্যে পঞ্চম থেকে অষ্টম—এই চার উইকেট হারানো বাংলাদেশ ৩৯৫ রানের লক্ষ্য দিয়ে নির্ভার থাকতে পারবে? আপনার কী মনে হচ্ছে?

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন