বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চেয়ারম্যান পদে নাম আসার আগে-পরে অনেকবারই মিসবাহর সরাসরি সমালোচনা করেছেন রমিজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের পর পারিবারিক কারণ দেখিয়ে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সরে দাঁড়িয়েছেন মিসবাহ। আর ওয়াকার বলেছেন, মিসবাহর সঙ্গে দায়িত্ব নিয়েছিলেন বলে তাঁর সঙ্গেই দায়িত্ব ছাড়ছেন তিনি। তবে এ দুজনের এমন সিদ্ধান্তের পেছনে রমিজের ‘প্রভাব’ স্পষ্টই। দায়িত্ব নেওয়ার পর সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ম্যাথু হেইডেন ও দক্ষিণ আফ্রিকা পেসার ভারনন ফিল্যান্ডারকে কোচ হিসেবে নিয়োগের কথাও জানিয়ে দিয়েছেন রমিজ।

গতকাল পিসিবির এক বিশেষ সভায় ‘সর্বসম্মতিক্রমে ও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়’ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক অধিনায়ক রমিজ। এরপর বেশ দীর্ঘ এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি। সেখানেই পাকিস্তান ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনার মাঝে এসেছে অধিনায়ক বাবরের প্রসঙ্গ।

default-image

রমিজ বলেছেন, বাবরকে এখনো ঠিকঠাক জানার সুযোগই হয়নি তাঁর, ‘তাকে মূল্যায়ন করার সময় আসেনি এখনো। তাকে ভালোভাবে আগে জানতে হবে আমার। একই সঙ্গে তাঁর ভূমিকাটাও বুঝতে হবে আমার। অধিনায়ক হিসেবে আপনার অনেক চাহিদা থাকতেই পারে—সেসবের কিছু ভালো হতে পারে, আবার কিছু অন্যের প্ররোচনায় আসতে পারে। আমি তার সঙ্গে কয়েকবার কথা বলেছি। তাকে বলেছি, “যদি তোমার জন্য একাডেমির বাইরে ৪০০ অটোগ্রাফশিকারি অপেক্ষা না করে থাকে, তাহলে ক্রিকেট খেলার মূল উদ্দেশ্যই ব্যর্থ।”’

বাবরকে নিয়ে নিজের প্রত্যাশার কথাও জানিয়েছেন রমিজ, ‘আমার সময়ে যেমন নেতৃত্ব ছিল, আমি তেমনটাই চাই। ইমরান খানকে নিয়ে আমার যে প্রত্যাশা ছিল, বাবরের কাছেও সেটাই থাকবে।’

default-image

নিজের লক্ষ্য নিয়ে পিসিবির নতুন চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘আমার লক্ষ্যটা পরিষ্কার। আমার ভাবনাতেই ছিল, সুযোগ পেলেই আমি নতুন করে শুরু করব। আমাদের লক্ষ্যের পরিধিটা বদলাতে হবে। সংক্ষিপ্ত মেয়াদি লক্ষ্য থাকবে, দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্য থাকবে। তবে যেটিই হোক না, একটা জিনিস খুবই সোজাসাপ্টা—দলের পারফরম্যান্সের সঙ্গে বোর্ডের পারফরম্যান্সের সম্পর্কটা। সেটি একেবারে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট পর্যন্ত বিস্তৃত। তৃণমূলের অবকাঠামো, সেখানকার কাজ দিয়েই আসলে দলের পারফরম্যান্স ফুটে ওঠে। বেশ কয়েকটা স্তরে কাজ করতে হবে, প্রতি স্তরেই সব ঢেলে সাজাতে হবে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন