default-image
>আজ রাতে চেলসির বিপক্ষে খেলতে নামছে লিভারপুল। এ ম্যাচের পরেই আনুষ্ঠানিকভাবে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা হস্তান্তর করা হবে লিভারপুলকে

শিরোপা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল কয়েক সপ্তাহ আগেই। আজ করা হবে শিরোপা হস্তান্তর। দীর্ঘ তিরিশ বছর পর আজ আবার লিভারপুলের কোনো অধিনায়ক লিগ শিরোপা নিয়ে উদ্‌যাপন করবেন সতীর্থদের সঙ্গে, অ্যানফিল্ডে। 

লিগ খরা কাটলেও একটু খচখচানি থেকেই যাচ্ছে। মাঠে দর্শক-সমর্থকদের ছাড়াই শিরোপা নিয়ে উল্লাস করতে হবে যে! করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন উঠে গেলেও জমায়েত হওয়া বা সামাজিক দূরত্ব না মেনে চলা একদম মানা। ফলে মাঠ থাকবে দর্শকশূন্য। এমনকি খেলোয়াড়েরা নিজেদের পরিবারও আনতে পারবেন না শিরোপা পাওয়ার ওই মাহেন্দ্রক্ষণে। আলোকসজ্জা, আতশবাজি দিয়েই হবে উদ্‌যাপন। কিন্তু, মাঠের মধ্যে না ঢুকতে পারলেও, মাঠের বাইরে যে সমর্থকেরা জড়ো হয়ে উল্লাস করবেন না, তার নিশ্চয়তা কি?

যে দিন গাণিতিকভাবে লিভারপুলের শিরোপা নিশ্চিত হয়, সেদিনই সামাজিক দূরত্বের নিয়মকানুন পাত্তা না দিয়ে মাঠের বাইরে উৎসব করেছিল সমর্থকেরা।যা চিন্তায় ফেলে দিয়েছিল লিভারপুলের শহর কাউন্সিলকে। একই কাজ করেছে লিডস ইউনাইটেডের সমর্থকেরাও। দীর্ঘ ১৬ বছর পর আবারও প্রথম বিভাগে ওঠার আনন্দ তাঁরা উদ্‌যাপন করেছেন রাস্তায় নেমে, বাধাহীনভাবে। একই কাজ করেছেন স্পেনের দ্বিতীয় বিভাগের দল কাদিজের সমর্থকেরাও, আগামী মৌসুমে যারা খেলবেন শীর্ষ লিগে।

এমন ভাবে জমায়েত হলে করোনাভাইরাসের প্রকোপ আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। ফলে আজ যখন হেন্ডারসনদের হাতে শিরোপা দেওয়া হবে, তখন যেন কেউ মাঠের বাইরে জমায়েত হতে না পারেন, এ জন্য মাঠের বাইরে কাউকে উচ্ছৃঙ্খলতা করতে দেখলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মার্সেসাইড পুলিশের প্রধান কনস্টেবল অ্যান্ডি কুক। শহরবাসীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা যাতে কোনোভাবেই হুমকির মুখে না পড়ে, সেটা নিশ্চিত করতেই এই সিদ্ধান্ত।

লিভারপুলের অধিনায়ক জর্ডান হেন্ডারসনও সমর্থকদের বাসায় উদ্‌যাপন করার অনুরোধ জানিয়েছেন, 'আপনার এখন বাসায় থাকা খুবই খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি যতভাবেই বলি না কেন, কোনোভাবেই এর গুরুত্ব হয়তো আপনাদের ঠিকমতো বোঝাতে পার না। আপনারা যদি এখন অ্যানফিল্ড থেকে দূরে থাকেন, সেটাই সবার জন্য ভালো। আপনারা নিজেরা নিজেদের মতো উল্লাস করুন। নিজেদের বাসায়। আমাদের শহরে কোভিড-১৯ বেশ ভালোভাবে আঘাত হেনেছে, এ অবস্থায় আমাদের উচিত আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য যারা সব সময় কাজ করে যাচ্ছেন তাঁদের সর্বাত্মকভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে যাওয়া। আপনারা তাঁদের পরামর্শ মেনে চলুন। জমায়েত হওয়া থেকে বিরত থাকুন। কারণ এটা নিরাপদ নয়।'

সমর্থকদের প্রতি হেন্ডারসন আরও বলেন, 'আমি কথা দিচ্ছি, আমরা যখন ট্রফি নিয়ে উদ্‌যাপন করব, আপনাদের সবার কথা আমাদের প্রতি মুহূর্তে মনে হবে। আপনাদের প্রতি মুহূর্তে অনুভব করব আমরা, আমরা মাঠে না থাকলেও। আমরা এই ট্রফিটা আপনাদের জন্যই জিতেছি, আপনাদের হয়েই শিরোপাটা মাথায় তুলব। এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনারাই সাহায্য করেছেন আমাদের। কিন্তু লিভারপুলের মূল্যবোধ আমাদের শিখিয়েছে, আমাদের একে অপরকে সাহায্য করতে হবে, একে অন্যের খেয়াল রাখতে হবে। আর এই পরিস্থিতিতে কেবলমাত্র বাসায় থাকার মাধ্যমেই যেটা আপনারা করতে পারবেন। সময় হলে আমরা আবারও আপনাদের সবার সঙ্গে উদ্‌যাপন করব।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0