বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই অ্যাস্টন ভিলাকে দুর্দান্ত ফুটবল খেলাচ্ছিলেন জেরার্ড। কিন্তু নিজের ঘরে এসে একটু যেন ধার হারিয়ে ফেলেছিলেন জেরার্ড। লিভারপুলের বিপক্ষে আজ পুরো ম্যাচেই দ্বিতীয় সেরা দল হয়ে ছিল ভিলা। গত মৌসুমে এই অ্যাস্টন ভিলার কাছেই ৭-২ গোলে হেরেছিল লিভারপুল। আজ ভিলার খেলায় সে দলের কোনো ছাপ দেখা যায়নি।

শুরু থেকেই আক্রমণের পর আক্রমণ করেছে লিভারপুল। দুই উইং দিয়ে টানা আক্রমণ করেও গোল পাচ্ছিল না লিভারপুল। ম্যাচে লিভারপুলের ২০টি শট ছিল। ওদিকে অ্যাস্টন ভিলা পুরো ৯০ মিনিটে মাত্র চারবার শট নিতে পেরেছে। এর মধ্যে একটিও লক্ষ্যে ছিল না। গোলে শট নেওয়া, বলের দখল নেওয়া, কিংবা সফলভাবে পাস দেওয়া—সবকিছুতেই এগিয়ে ছিল লিভারপুল। কিন্তু সালাহ-মানে-জোতাদের আক্রমণ অ্যাস্টন ভিলার রক্ষণে আটকা পড়ছিল।

default-image

ওলি ওয়াটকিনস আর জন ম্যাকগিনরা প্রতি–আক্রমণকে অস্ত্র মানছিলেন। কিন্তু লিভারপুলের প্রেসিং অ্যাস্টন ভিলাকে এক মুহূর্ত স্বস্তি দেয়নি। এমন প্রভাববিস্তারী খেলাতেও গোল পাচ্ছিল না অলরেডরা। গোল পেতে সেই সালাহর জাদুকরি মুহূর্তের অপেক্ষাতেই থাকতে হয়েছে। ৬৬ মিনিটে প্রতিপক্ষের বক্সে ঢুকে পড়া সালাহকে থামাতে গিয়ে ফেলে দেন টাইরন মিংস। সালাহর পেনাল্টি ঠেকাতে সঠিক দিকেই ঝাঁপ দিয়েছিলেন এমিলিয়ানো মার্তিনেজ। কিন্তু পোস্টঘেঁষা শট ঠেকাতে পারেননি।

এই জয়ে লিভারপুল লিগে দ্বিতীয় স্থানেই থাকল। ওদিকে লিডস ইউনাইটেডের বিপক্ষে চেলসির জয়ও এসেছে পেনাল্টি থেকে। যোগ করা সময়ে জর্জিনিওর পেনাল্টি গোলে লিডসের বিপক্ষে ৩-২ গোলে জয় পেয়েছে তিনে থাকা চেলসি। সাউদাম্পটনকে ৩-০ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিলে পাঁচে উঠে এসেছে আর্সেনাল। তবে টটেনহাম ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেলেই সাতে নেমে যাবে আর্সেনাল।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন