লিগ জেতাটা আরও একটু কঠিন হয়ে গেল রিয়ালের জন্য।
লিগ জেতাটা আরও একটু কঠিন হয়ে গেল রিয়ালের জন্য।ছবি: এএফপি

নিজেদের মাঠে রিয়ালের রাতটা কাটল হতাশায়। যে রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে হেসেখেলে তিন পয়েন্ট পাওয়ার কথা, সেই ম্যাচেই দুই পয়েন্ট খুইয়েছে জিদানের দল। গোলশূন্য ড্র করেছে তারা। ফলে লা লিগার শিরোপা জয়ের লক্ষ্যটা আরেকটু কঠিন হয়ে গেল তাদের জন্য। চোট থেকে ফিরে মাসখানেক পর মাঠে নেমে দলের বেলজিয়ান উইঙ্গার এদেন হ্যাজার্ড দেখলেন দলের হোঁচট খাওয়া।

নিয়মিত একাদশের মিডফিল্ডার টনি ক্রুস, ফরাসি লেফটব্যাক ফারলাঁ মেন্দি, ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ভিনিসিয়ুস জুনিয়রদের ছাড়াই মাঠে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। দলে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ইসকো, স্প্যানিশ সেন্টারব্যাক নাচো ফের্নান্দেজ খেলেছেন লেফটব্যাক হিসেবে। ওদিকে ভিনিসিয়ুসের জায়গায় রদ্রিগো গোজ। সব মিলিয়ে দলের রসায়নের বেশ বড়সড় পরিবর্তন আর কি!। তবে দলে ফিরেছিলেন মূল রাইটব্যাক দানি কারভাহাল। রিয়ালকে গোলহীন রাখার পেছনে বার্সেলোনার সাবেক চিলিয়ান গোলরক্ষক ক্লদিও ব্রাভোর ভূমিকা অনেক বেশি। প্রথমার্ধেই যেমন, রদ্রিগো আর বেনজেমার দুটি শট দুর্দান্তভাবে আটকে দেন তিনি। ম্যাচ শেষে মেসিরা সাবেক সতীর্থকে ধন্যবাদ জানিয়ে খুদেবার্তা-টার্তা পাঠিয়েছেন কি না কে জানে!

default-image

শেষের ১৫ মিনিটের জন্য স্প্যানিশ উইঙ্গার মার্কো আসেনসিওর জায়গায় এদেন হ্যাজার্ডকে মাঠে নামান জিদান, গত মাসের শুরুর দিকে যিনি আবারও চোটে পড়েছিলেন। দলবদল ফি’র দিক দিয়ে বর্তমানে রিয়াল স্কোয়াডের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড়ও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচ শেষে গোলের সামনে বেনজেমাদের ব্যর্থতাই বড় করে চোখে পড়েছে জিদানের। তবে জিদানের এটাও মনে হচ্ছে, একটা ম্যাচ ড্র করার সঙ্গে সঙ্গে যেমন 'গেল', 'গেল' রব উঠে গেছে, ততটা না হলেও চলে, ‘আমরা দুই পয়েন্ট হারিয়েছি, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। আমরা রক্ষণের দিক দিয়ে অনেক ভালো খেললেও আক্রমণের দিক দিয়ে অনেক হতাশ করেছি। কিছু একটার অভাব পোড়াচ্ছিল আমাদের আক্রমণভাগকে। এটাই সত্যি।’

তবে এক ম্যাচে ড্র করার অর্থই যে সবকিছু শেষ হয়ে যাওয়া নয়, সেটাই শোনা গেছে জিদানের কণ্ঠে, ‘আমরা দুই পয়েন্ট হারিয়েছি, এবং মানুষজনের এমন ভাবনাও চলে এসেছে যে আমরা খারাপ। লিগের এখনো অনেক পথ বাকি। আমরা শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাব।’

default-image

চ্যাম্পিয়নস লিগে তিন দিন পর চেলসির বিপক্ষে সেমিতে দেখা হচ্ছে রিয়ালের। এই অবস্থায় দলের আক্রমণের অবস্থা এমন হোক, নিশ্চিতভাবেই চাননি জিদান, 'আমরা পরবর্তী ম্যাচের জন্য প্রস্তুত। যে ম্যাচটা আমাদের মৌসুমের সবচেয়ে কঠিন ম্যাচ হতে যাচ্ছে।'

আজ অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে খেলতে নামবে আতলেতিকো। এমনিতেই এক ম্যাচ হাতে রেখে রিয়ালের কল্যাণে দুই পয়েন্টে এগিয়ে আছে তারা, এই ম্যাচে জিতলে পাঁচ পয়েন্টে বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে যাবে দিয়েগো সিমিনিওনের ক্লাব।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন