আজ জন্মদিন, তাই ছুটিতে গিয়েছেন জেমি

বিজ্ঞাপন
default-image
>

আফগানিস্তানপর্ব শেষ করেই গতকাল রাতের ফ্লাইটে ঢাকা ছাড়ার কথা বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ জেমি ডের। কাতার ও ভারত ম্যাচ সামনে রেখে বাংলাদেশের অনুশীলন শুরু হওয়ার কথা ২৫ সেপ্টেম্বর।

আজ দিনটা পরিবারের সঙ্গে কাটাবেন জেমি ডে। কারণ, ৪০তম জন্মদিন তো আরেকবার আসবে না তাঁর জীবনে। পরিবারের সঙ্গে ঘটা করে জন্মদিনের উৎসব পালনের জন্য গতকাল রাতেই লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন জামাল ভূঁইয়াদের কোচ। বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ে কাতার ও ভারত ম্যাচ সামনে রেখে ১২ দিন পর ঢাকায় ফেরার কথা তাঁর। জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে ২৫ সেপ্টেম্বর।

পরবর্তী ম্যাচ দুটি সামনে রেখে বাংলাদেশে ফুটবল ফেডারেশনকে পরিকল্পনা দিয়ে গিয়েছেন জেমি। ১০ অক্টোবর কাতার ও ১৫ অক্টোবর ভারত ম্যাচ সামনে রেখে বিদেশি দুটি দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আগ্রহ তাঁর। ম্যাচ দুটির সম্ভাব্য সূচি ২৯ সেপ্টেম্বর ও ৩ অক্টোবর। জাতীয় দল সম্ভব না হলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস বা চতুর্থ হওয়া সাইফ স্পোর্টিংকে প্রতিপক্ষ হিসেবে চান জেমি, ‘আমি বাফুফেকে বলেছি, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, লাওস, ম্যাকাউ, গুয়াম বা এ-জাতীয় দল ঢাকায় আনার ব্যবস্থা করতে। দুটি ম্যাচের প্রতিপক্ষই জাতীয় দল হলে ভালো। তাতে আমরা নিজেদের ভুলগুলো ভালোভাবে শুধরে নিতে পারব। জাতীয় দল আনা সম্ভব না হলে ক্লাব দল হলেও ক্ষতি নেই।’

কিন্তু প্রশ্নটা হলো, ১৫ দিনের প্রস্তুতি নিয়ে কাতারের বিপক্ষে আশানুরূপ ফল সম্ভব কি না? এতেই যথেষ্ট মনে করেন কোচ, ‘আমি মনে করি, কাতার ম্যাচের জন্য ১৫ দিনের প্রস্তুতি যথেষ্ট। বাইরের কোনো জাতীয় দল এত দিন টানা অনুশীলন করে না।’

বিশ্বের অন্য সব দলের মতো নয় বাংলাদেশ। অন্যরা যত দ্রুত সবকিছু আয়ত্তে নিতে পারে, বাংলাদেশ তা পারে না। এটি দেখা গেছে ১০ সেপ্টেম্বর দুশানবেতে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। সে ব্যর্থতা ভুলে গিয়ে ঘরের মাঠে পরবর্তী ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছেন জেমি। ব্রিটিশ এই কোচের ভালো করেই জানা আছে প্রতিপক্ষ কাতার এশিয়ান কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। যেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরে বাছাইপর্ব শুরু করেছে বাংলাদেশ, তাদেরই ৬-০ গোলে হারিয়ে বাছাইপর্ব শুরু করেছে কাতার।

জেমি ডে হারের আগে হাল ছাড়তে নারাজ। সামর্থ্যের দিক থেকে পিছিয়ে থাকলেও কোচ বলেন, ‘আমরা লড়াই করব কাতারের সঙ্গে। ঘরের মাঠে। স্টেডিয়ামভর্তি দর্শক দলকে সমর্থন দিলে এবং রক্ষণটা ভালোভাবে করতে পারলে ভালো কিছু আমরা আশা করতেই পারি।’ এরপরই মনে করিয়ে দিলেন বাস্তবতা, ‘আমরা নিজেদের সেরাটা দিলাম, ঠিক আছে। এরপরও কাতার অনেক অনেক এগিয়ে। এটা সবাইকে বুঝতে হবে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন