বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গত মৌসুমে লিগে আতলেতিকোর বিপক্ষে দুই ম্যাচে যে গোল পায়নি বার্সা। প্রথম ম্যাচে আতলেতিকো মাদ্রিদের মাঠে বার্সা হেরেছিল ১-০ গোলে। ক্যাম্প ন্যুতে দ্বিতীয় ম্যাচটা গোলশূন্য ড্র।

গত মৌসুমে মেসি থাকা অবস্থায়ই গোল পায়নি, আর এই মৌসুমে তো মেসি অনিচ্ছায় বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজির জার্সি গায়ে জড়িয়েছেন। শুধু মেসিই কেন, গোলের খোঁজে দলে যখন চোখ রাখবেন বার্সা কোচ রোনাল্ড কোমান, তেমন কাকেই-বা খুঁজে পাবেন?

লুইস সুয়ারেজকে এক মৌসুম আগেই বিদায় দিয়েছে বার্সা, মেসির পর এই মৌসুমে বার্সা ছেড়ে গেছেন আঁতোয়ান গ্রিজমানও। দুজনেরই ঠিকানা এখন আতলেতিকো!

মেসি, সুয়ারেজ কিংবা গ্রিজমানের জায়গায় বার্সার এখন ভরসা ফাতি, মেম্ফিস, ডি ইয়ং কিংবা কুতিনিও। বার্সার পালাবদলের চিত্রটা এখানেই স্পষ্ট। কিন্তু পালাবদলে কতটা অসহায় হয়ে পড়ছে বার্সা, সেটির প্রমাণ হাজির করে পরিসংখ্যান বলছে, বর্তমান বার্সা দলে আজ ম্যাচে নামতে পারেন, এমন কারোরই বার্সার জার্সিতে আতলেতিকোর বিপক্ষে গোলের অভিজ্ঞতা নেই!

default-image

শুধু ওসমান দেম্বেলেই আতলেতিকোর বিপক্ষে গোল করেছেন আগে, কিন্তু চোটের কারণে এই মুহূর্তে মাঠের বাইরে এই ফরোয়ার্ড।

বার্সা সর্বশেষ চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে ২০১৪-১৫ মৌসুমে, সেবার লিগ, স্প্যানিশ কাপও জিতে ‘ত্রিমুকুট’ জেতার গৌরব নিয়েই মৌসুম শেষ করেছিল বার্সা। ইউরোপে সর্বশেষ বার্সার দাপট দেখানো সেবারই! সেই মৌসুমকে ভিত্তি ধরে নিন, এরপর থেকে বার্সার পালাবদলের চিত্র স্পষ্ট হয়ে যাবে আতলেতিকো-বার্সা ম্যাচের গল্পে।

ওই মৌসুমের পর বার্সা আর আতলেতিকো লিগে ১৪ বার মুখোমুখি হয়েছে। এই ১৪ ম্যাচে বার্সা গোল করেছে ১৮টি। তার অর্ধেকই মেসির (৯টি)। বাকি ৯ গোলের মধ্যে সুয়ারেজ করেছেন ৪টি, নেইমার ২টি। রাফিনিয়া, রাকিতিচ ও দেম্বেলে ১টি করে, বাকি একটি গোল আতলেতিকোর আত্মঘাতী।

আর লিগের বাইরের হিসাব? স্প্যানিশ কাপ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ মিলিয়ে এই ৮ মৌসুমে বার্সা ৭ বার আতলেতিকোর মুখোমুখি হয়েছে। সেই ৭ ম্যাচে বার্সার গোল ১১টি, যার মধ্যে সুয়ারেজ সবচেয়ে বেশি ৪ গোল করেছেন। মেসি ৩টি, নেইমার ২টি, গ্রিজমান ১টি, অন্যটি আত্মঘাতী।

default-image

আজকের ম্যাচটা যেহেতু প্রতিপক্ষের মাঠে, তাহলে সেটির হিসাব করবেন? লিগে সেখানে সর্বশেষ ৮ মৌসুমে ৮ ম্যাচে বার্সার গোল ৮টি, এর ৪টিই মেসির। নেইমার-সুয়ারেজ-দেম্বেলে-রাফিনিয়া করেছেন একটি করে। লিগের বাইরে আতলেতিকোর মাঠে তিন ম্যাচে বার্সার গোল পাঁচটি, যার মধ্যে নেইমারের ২টি, মেসি ও সুয়ারেজের ১টি করে, অন্যটি আত্মঘাতী।

নেইমার তো বার্সায় অতীত হয়েছেন অনেক দিন হলো, সুয়ারেজ বিদায় নিয়েছেন বছরখানেক, মেসির বিদায়ের ক্ষতটা বার্সায় এখনো দগদগে। পালাবদলে বার্সার মুখ এখন ফাতি-মেম্ফিসরা। আতলেতিকোর বিপক্ষে ম্যাচে আজ পালাবদলের চিত্রটা ইতিবাচকভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারবেন তাঁরা?

না পারলে অবশ্য বার্সা কোচ কোমানকেই ধাক্কাটা সইতে হবে। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমে যে গুঞ্জন, আজকের ম্যাচের পরই তাঁকে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছেন বার্সা সভাপতি হোয়ান লাপোর্তা। আজ আতলেতিকোর বিপক্ষে ম্যাচে দারুণ কিছু দেখিয়ে গিলোটিন থেকে মাথাটা সরিয়ে নিতে পারবেন কোমান? উত্তরটা ফাতি-মেম্ফিসদের হাতেই!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন