বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আগানিস্তান তালেবান দখলদারির পর থেকে প্রচুর মানুষ দেশ ছাড়ছেন। এঁদের মধ্যে একটা বড় অংশ বুদ্ধিজীবী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও খেলোয়াড়েরা। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত আফগানিস্তানে প্রথম তালেবান শাসনের সময় নারীদের ওপর খড়্গহস্ত ছিল তারা। সেখানে মেয়েদের স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছিল। নারীদের কাজকর্ম করার ব্যাপারেও নেমে এসেছিল নিষেধাজ্ঞা। সে সময় নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণ ছিল বড় ধরনের অপরাধ।

২০ বছর পর আফগানিস্তান নতুন করে তালেবান শাসনের অধীনে আসার পর একই ধরনের হুমকি তৈরি হয়েছে দেশটিতে। কিছুদিন আগে একজন তালেবান মুখপাত্র একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে বলেছেন, তিনি মনে করেন না নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করতে দেওয়ার কোনো কারণ আছে। তিনি নারীদের খেলাধুলায় অংশগ্রহণকে ‘ইসলাম বিরোধী’ আর ‘অপ্রয়োজনীয়’ হিসেবে বর্ণনা করেন।

তালেবান দখলদারির শুরুতেই আফগানিস্তান নারী ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক মেয়ে ফুটবলারদের নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সব পোস্ট মুছে ফেলার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি তাদের খেলার সামগ্রীগুলো পুড়িয়ে ফেলতে বলেছিলেন।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন