default-image

মৌসুমের লিভারপুলের প্রথম শিরোপা জয়ের ম্যাচে মাঠে নামা হয়নি দলটির গোলরক্ষক আলিসনের। সেই ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকই আজ নায়ক হলেন। টাইব্রেকারের সাডেন ডেথে ম্যাসন মাউন্টের শট নিজের বাঁয়ে ঝাঁপিয়ে রুখে দেন আলিসন। পরের শটে কস্তাস সিমিকাস গোল করে লিভারপুলকে অষ্টম এফএ কাপ এনে দেন। সাদিও মানের নেওয়া টাইব্রেকারের পঞ্চম শটটি এদুয়ার্দ মেন্দি ফিরিয়ে না দিলে লিভারপুল জিততে পারতে তখনই। চেলসির সিজার আজপিলিকুয়েতা দ্বিতীয় শটটা মিস করলেও লিভারপুল প্রথম চার শটেই গোল পেয়েছিল। সাডেন ডেথে হাকিম জিয়েশ ও দিয়োগো জোতা গোল করার পর আলিসনের সেই সেভ।

default-image

এর আগে মৌসুমের আগের তিন ম্যাচের ফলই উপহার দিয়েছে দুদল। ৩৩ মিনিটে চোটের কারণে সালাহকে হারিয়ে ফেলা লিভারপুল চতুর্থবারের চেষ্টাতেও নির্ধারিত সময়ে হারাতে পারেনি টমাস টুখেলের দলকে। প্রিমিয়ার লিগে প্রথম দেখায় ঘরের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করার পর ফিরতি ম্যাচে চেলসির মাঠে ২-২ গোলে ড্র করে লিভারপুল। এরপর ফেব্রুয়ারিতে লিগ কাপের ফাইনালে গোলশূন্য ড্র ম্যাচের কথা তো আগেই বলা হয়েছে।

এফএ কাপের ফাইনালে দুদলই অবশ্য গোল করার সুযোগ নষ্ট করেছে। প্রথমার্ধে লিভারপুলের কলম্বিয়ান ফরোয়ার্ড লুইস দিয়াজ বেশ কয়েকবারই গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলেন। দ্বিতীয়ার্ধে চেলসির মার্কোস আলোনসোর শট লাগে ক্রসবারে। নির্ধারিত সময়ের শেষ ১০ মিনিটে লিভারপুরের দিয়াজ ও অ্যান্ডি রবার্টসনের শটও প্রতিহত হয় পোস্টে।

অতিরিক্ত সময়ে অবশ্য দুদলের কেউই পরিষ্কার সুযোগ পায়নি গোলের।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন