বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত সোমবার পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা আরামবাগ ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল সাইফকে। প্রথমার্ধে সাইফের এমানুয়েল আরিয়াচুকু ও আরামবাগের ইসলমজনের পেনাল্টি ম্যাচকে সমতায় রেখেছিল। জমজমাট নাটকের শুরু ৭৪ মিনিটে।

৭৪ থেকে ৭৬ মিনিট—এই সময়ে সাইফ দুই গোল দিয়ে বসল। আবার ৭৮ থেকে ৮৪ মিনিট—এই সময়ের মধ্যে স্কোর ৩-৩ করে ফেলল আরামবাগ।

default-image

নাটক শেষ হয়নি তখনো। ৮৮ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে দুর্দান্ত গোল করে রোমাঞ্চকর ম্যাচের আলো নিজের দিকে কেড়ে নিয়েছেন সাইফ অধিনায়ক জামাল। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে বল সরাসরি জালে জড়িয়ে দিয়েছেন জাতীয় দলের অধিনায়ক।

সে গোল সম্পর্কে জামাল বলেন, ‘৩-১ গোলে এগিয়ে গিয়ে ৩-৩ সমতা হওয়ার পর আমার খুব রাগ হচ্ছিল। আমি ভাবছিলাম প্রতিপক্ষের অর্ধে কোনো ফ্রি-কিকি পেলে, সেটা যত দূরত্ব থেকেই হোক না কেন, আমি সরাসরি পোস্টে মারব। আমার সতীর্থরা বক্সের মধ্যে ক্রস করতে বলেছিলেন, কিন্তু আমি কারও কথা শুনিনি। আমার লক্ষ্য ছিল একটাই—মানব দেয়ালের পাশ দিয়ে জোরে শট নেওয়া।’

default-image

গত মৌসুমে কলকাতার মোহামেডানের হয়ে আই লিগে খেলেছেন জামাল। সেটি শেষ করেই প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশ অধিনায়ক ফিরে আসেন তাঁর পুরোনো ক্লাব সাইফে। এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচ খেলে গোল করেছেন একটি। সেটি সেই ফ্রি-কিক থেকেই।

এমন দুর্দান্ত গোলের পর স্বাভাবিকভাবে ঈদের আনন্দ যায় বেড়ে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভক্তদের উদ্দেশে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জামাল। ফেসবুকে তিনি লেখেন, ‘সবাইকে ঈদ মোবারক। দোয়া করি আপনার ও আপনার পরিবারের ঈদ ভালো কাটুক। সবকিছুর জন্য আলহামদুলিল্লাহ।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন