বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এক যুগের বেশি সময় কোচিং ক্যারিয়ার ব্রুজোনের। জাতীয় দলের দায়িত্ব পেলেন এই প্রথম। জামাল ভূঁইয়াদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স খারাপ হলেও নতুনে দায়িত্ব নিয়ে লড়াইয়ের কথা শোনালেন ব্রুজোন, ‘প্রথমবারের মতো একটি দেশের প্রতিনিধি হয়ে ডাগআউটে দাঁড়াব। এটা বড় সম্মানের। ৭ দিনের মধ্যে একটি দলকে আমূল পরিবর্তন করা যায় না। আমি লড়াকু সৈনিক। খেলোয়াড়দের মানসিকভাবে উন্নতি করতে চাই।’ তবে সে উন্নতিতে যে রাতারাতি সাফল্য পাবেন না, সেটাও জানিয়েছেন ‘জাদুকর নই’ বলে।

default-image

জেমি ডের অধীনে সাধারণত রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলেছে বাংলাদেশ দল। সাফে সেই দলকে নতুন কৌশলে খেলাতে চান ব্রুজোন। বসুন্ধরা কিংসকে ৫টি শিরোপা জেতানো এই কোচ বললেন, ‘প্রতিপক্ষ হাই প্রেসিং ফুটবল খেললে আমরাও হাই প্রেসিং খেলব। তবে এমন কৌশলে যাব না, যেটা আমাদের জন্য আত্মঘাতী হয়।’

আগামী ১ অক্টোবর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করবে বাংলাদেশ। ৪, ৭ ও ১৩ অক্টোবর বাংলাদেশ যথাক্রমে খেলবে ভারত, মালদ্বীপ ও নেপালের বিরুদ্ধে। প্রায় ৫ বছর ধরে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে কাজ করায় প্রতিপক্ষ দলগুলো সম্পর্কে তাঁর ভালোই জানা। ব্রুজোনের মূল্যায়ন,‘ র‌্যাঙ্কিংয়ের বাস্তবতাটা হলো আমরা নিচ থেকে দ্বিতীয় দল। তবে আমার কাছে বাস্তবতাটা ভিন্ন। যদি প্রথম ম্যাচে আমরা শ্রীলঙ্কাকে হারাতে পারি। অন্য দুটি প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ ও নেপাল আমাদের চেয়ে ভালো নয়। তাদের বিপক্ষে জিততেও পারি, ড্রও হতে পারে। আবার হারতেও পারি।’

default-image

র‍্যাঙ্কিংয়ে সবচেয়ে এগিয়ে থাকা ভারতকে নিয়ে তিনি বলেন, ‘ভারতে বহু বছর কাজ করেছি। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ওরা আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে। কিন্তু কৌশলে আমাদের সমপর্যায়ের দল। ওদের দলের ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার মতো কোনো খেলোয়াড় নেই। তবে শারীরিকভাবে এগিয়ে থাকা বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় আছে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন