বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গত রাতে রোনালদোর হ্যাটট্রিকে লুক্সেমবার্গকে ৫-০ গোলে হারিয়েছে পর্তুগাল। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে দশটি হ্যাটট্রিক করে ফেললেন তিনি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এত বেশি হ্যাটট্রিক আর কোনো তারকারই নেই।


তিন গোলে নিজের আন্তর্জাতিক গোলের সংখ্যা ১১৫-তে নিয়ে গেলেন রোনালদো। এই জয়ে বাছাইপর্বে নিজেদের গ্রুপে এখনো দ্বিতীয় স্থানেই রইল পর্তুগাল। শীর্ষে আছে সার্বিয়া, যারা গত রাতে আজারবাইজানকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে। জোড়া গোল করেছেন ফিওরেন্তিনার স্ট্রাইকার দুসান ভ্লাহোভিচ।

তবে সার্বিয়ার চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলেছে পর্তুগাল। গ্রুপ ‘এ’ তে নিজেদের হাতে থাকা বাকি ম্যাচটা জিতলেই সার্বিয়াকে টপকে গ্রুপের শীর্ষে উঠে যাবে পর্তুগাল। গত রাতে লুক্সেমবার্গকে হারিয়ে বাছাইপর্বে টানা চার ম্যাচের জয় তুলে নিয়েছে ২০১৬ সালের ইউরোজয়ীরা।


ম্যাচের আট মিনিটেই ম্যানচেস্টার সিটির মিডফিল্ডার বের্নার্দো সিলভার ফাউলের সুবাদে পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন রোনালদো। ১৩ মিনিটে রোনালদো নিজেই ফাউলের শিকার হন ডি-বক্সের মধ্যে। সে পেনাল্টি থেকে গোল করলেও রেফারি বাতিল করে দেন তা, কারণ স্ট্রাইকার আন্দ্রে সিলভা আগেভাগে পেনাল্টি বক্সের মধ্যে ঢুকে পড়েছিলেন। তবে তাতে লুক্সেমবার্গের কোনো উপকার হয়নি। আবারও পেনাল্টি নিয়ে আবারও বল জালে জড়ান পর্তুগিজ অধিনায়ক।

১৮ মিনিটে বের্নার্দো সিলভার সহায়তায় গোল করেন রোনালদোর ক্লাব-সতীর্থ ব্রুনো ফার্নান্দেস। ৬৯ মিনিটে স্পোর্তিংয়ের মিডফিল্ডার জোয়াও পালিনিয়ার গোলে ব্যবধান ৪-০ করে ফেলেন রোনালদোরা। শেষমেশ ৮৭ মিনিটে হ্যাটট্রিক করে ম্যাচে অর্জনের ষোলোকলা পূর্ণ করেন রোনালদো।


ক্লাব ক্যারিয়ারে সব মিলিয়ে ৪৮ বার হ্যাটট্রিক করেছেন রোনালদো। একবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে, তিনবার জুভেন্টাসের হয়ে, বাকি ৪৪ বার রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফেরার পর যদিও এখনো কোনো হ্যাটট্রিক করতে পারেননি রোনালদো।


তবে যে গতিতে এগোচ্ছেন, সেটা পেয়ে যেতে কতক্ষণ!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন