মোহামেডান ক্লাবের নির্বাচন আবারও পিছিয়েছে।
মোহামেডান ক্লাবের নির্বাচন আবারও পিছিয়েছে।ফাইল ছবি: প্রথম আলো

এত দিন শুধু মুখে মুখেই শোনা যাচ্ছিল সবকিছু। সর্বশেষ শোনা গিয়েছিল, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বহুল আলোচিত পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন ২৭ ফেব্রুয়ারি। তবে ওই দিন নির্বাচন না হলেও অনিশ্চয়তা কেটে গেছে। এক সপ্তাহ পিছিয়ে এই নির্বাচন হবে ৬ মার্চ।

আজ ঘোষিত নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী, ২২ ফেব্রুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ। ওই দিনই সন্ধ্যায় চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে। ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র বিক্রি। পরিচালক পদে মনোনয়নপত্রের মূল্য ১০ হাজার টাকা। সভাপতি পদে ৫০ হাজার টাকা। ১ মার্চ বেলা ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা নেওয়া হবে। ১ মার্চ রাত দিবাগত রাত ৩টায় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে।

বিজ্ঞাপন
default-image

৩ মার্চ সকাল ১০-১২টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই। ওই দিনই রাত ৮টা পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে। ৪ মার্চ বেলা ৩টায় চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। ৬ মার্চ সকাল ১০টায় সাধারণ সভা শুরু। একই দিনে লা মেরিডিয়ান হোটেল বেলা ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে আজ নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেন মোহামেডানের এই প্রতীক্ষিত নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার রিয়াজুল কবীর কাওছার। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে আয়োজন করতে ৫ সদস্যের নির্বাচন কমিশন বদ্ধপরিকর বলে জানিয়েছেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মোহামেডানের ইনডিপেনডেন্ট চেয়ারম্যান ও অ্যাটর্নি জেনারেল এম এ আমিন উদ্দিন।

ঐতিহ্যবাহী মোহামেডানের পরিচালনা পর্ষদের সর্বশেষ নির্বাচন হয় ২০১৩ সালে। দুই বছর পরপর নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও এত দিন আইনি জটিলতাসহ নানা কারণে নির্বাচন হয়নি। ২০১৯ সালে আদালত তৎকালীন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এম এ আমিন উদ্দিনকে মোহামেডানের ইনডিপেনডেন্ট চেয়ারম্যান নিযুক্ত করে নির্বাচন আয়োজনের দায়িত্ব দেন। একই বছর সেপ্টেম্বরে ক্যাসিনো-কাণ্ডে মোহামেডানে স্থবিরতা দেখা দেয়। ক্লাবের অনেক সাবেক ফুটবলার, কর্মকর্তা এগিয়ে আসেন। তারপর প্রতীক্ষা ছিল নির্বাচনের। অবশেষে তফসিল ঘোষণার মাধ্যমে নির্বাচন নিয়ে তোড়জোড় শুরু হলো।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন