বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ সকালে ঢাকায় আসার পর দুপুরেই ক্লাব অফিসে হয়েছে দুই পক্ষের আনুষ্ঠানিক চুক্তি। ক্রুসিয়ানির সঙ্গে সাইফের চুক্তিটা এক বছরের। মূলত সাইফের নজর খেলোয়াড় তৈরি করায়।

সর্বশেষ অনূর্ধ্ব–২৩ জাতীয় দলে সবচেয়ে বেশি খেলোয়াড় ছিলেন সাইফ স্পোর্টিংয়ের—৭ জন। খেলোয়াড় তৈরির সঙ্গে এবার সাফল্যও চাই তাদের। সে জন্যই ক্রুসিয়ানিকে আনা বলে জানিয়েছেন ক্লাব কর্তারা।

ঘরোয়া ফুটবলে এখনো কোনো শিরোপা জিততে পারেনি সাইফ। এমন দলকে শিরোপা জেতানো সম্ভব কি না? আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে ক্রুসিয়ানি বলেন, ‘অবশ্যই চেষ্টা থাকবে সবগুলো শিরোপা জেতার। তবে কাজটা কঠিন। আমি চ্যালেঞ্জ নিতে চাই।’
ক্রুসিয়ানির অধীনেই সর্বশেষ সাফের ফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ।

default-image

তাঁর অধীনে সুন্দর পাসিং ফুটবল উপহার দিয়েছিল আলফাজ আহমেদ, আরমান মিয়ারা। এবারও ভালো কিছু করে দেখাতে চান ক্রুসিয়ানি, ‘কোচেরা অনেক সময় সুন্দর সুন্দর কথা বলেন। কিন্তু মাঠে তেমন কাজ দেখা যায় না। কথায় নয়, আমি কাজ করে দেখাতে চাই।’

মাঝে কয়েক বছর পেশাদার ফুটবলের সঙ্গে ছিলেন না ক্রুসিয়ানি। সর্বশেষ ২০১৭ সালে ক্যামেরুনের এক ক্লাবে কোচিং করিয়েছেন। এরপরে আর্জেন্টিনায় নিজের একাডেমি নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন।

তাঁকে নিয়োগ দেওয়া নিয়ে ক্লাবের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসিরউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের কাছে ৫০–৬০টির মতো সিভি ছিল। আমরা দেখেছি, বাংলাদেশের ফুটবলারদের মানসিকতা সম্পর্কে কার ধারণা আছে। সে ক্ষেত্রে ক্রুসিয়ানিকেই আমাদের সেরা মনে হয়েছে। বাংলাদেশে তাঁর অতীত রেকর্ডও ভালো।’

default-image

নতুন মৌসুমে খাতা কলমে বসুন্ধরা কিংস, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের পর আবাহনী লিমিটেডের সঙ্গে রাখতে হবে সাইফকে। মাঠের পারফরম্যান্স দিয়ে লিগে দ্বিতীয় হতে চায় করপোরেট ক্লাবটি।

নাসিরউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘লিগে আমরা চারের মধ্যেই আটকে আছি। এবার আমাদের প্রথম লক্ষ্য লিগে দ্বিতীয় হওয়া। সেটা সম্ভব হওয়ার রাস্তায় থাকলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগও আসতে পারে। তবে সবগুলো টুর্নামেন্টগুলোর ফাইনালে খেলতে চাই।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন