ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হওয়ার স্বপ্ন দেখেন মরিসিও পচেত্তিনো।
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হওয়ার স্বপ্ন দেখেন মরিসিও পচেত্তিনো। ছবি: টুইটার

উলে গানার সুলশারের জায়গাটা কি নড়বড়ে হয়ে গেছে? এভারটনকে আজ তাদেরই মাঠে ৩-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। চ্যাম্পিয়নস লিগেও আপাতত গ্রুপ শীর্ষে আছে দল। কিন্তু দলের খেলায় উন্নতির ছাপ খুব একটা দেখছেন না অনেকে। আর এভারটনের বিপক্ষে জয়ের পরও লিগে ১৪তম  অবস্থান ইউনাইটেডের। ওদিকে রেড ডেভিলদের কোচের পদটা পেতে যে প্রচণ্ডভাবে মুখিয়ে আছেন মরিসিও পচেত্তিনো।

ইউনাইটেডের কোচ হবেন, এই জন্যই নাকি দুই দুবার বার্সেলোনা থেকে প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন টটেনহাম হটস্পারের সাবেক কোচ। ইংল্যান্ডে জোর আলোচনা চলছে, গত আগস্টে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে যখন বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত করে বায়ার্ন মিউনিখ, তখনই প্রস্তাবটা পেয়েছিলেন পচেত্তিনো। কিন্তু ইউনাইটেডের কোচ হবেন বলেই নাকি যাননি স্পেনে। এবং তাঁর এই অপেক্ষা করার ব্যাপারটাও অনেকেই সঠিক বলে মনে করছেন।

বিজ্ঞাপন

এমনিতেই ক্লাবে সুলশারের অবস্থান নড়ে গেছে। তাঁর অধীনে এবারের প্রিমিয়ার লিগে তিনটিতেই হেরেছে ম্যানইউ। চ্যাম্পিয়নস লিগে গত বুধবার তুরস্কের ক্লাব ইস্তাম্বুল বাশাকশেহিরের কাছে ২-১ গোলে হেরেছে সুলশারের দল। এর মধ্যে সবচেয়ে জ্বলুনি ধরানো ঘটনা ঘটেছে গত সপ্তাহে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ১৪ বছরের মধ্যে এই প্রথম আর্সেনালের কাছে হেরেছে। অবশ্য আজ লিগে গুডিসন পার্কে ৩-১ গোলে এভারটনকে হারিয়েছে ইউনাইটেড। কিন্তু এই জয় সুলশারের পক্ষে এমন চাপ উতরানোর জন্য কতটা সহায়ক হবে, কে জানে?

ফুটবল বিশেষজ্ঞ জেমি ও’হারা তো পারলে এখনই ইউনাইটেডের কোচ বানিয়ে দেন পচেত্তিনোকে। টকস্পোর্ট–এর সঙ্গে কথোপকথনে টটেনহামে থাকার সময় পচেত্তিনোর কীর্তিগুলো মনে করিয়ে বলছিলেন, ‘টটেনহামে যা করেছেন, তাতে পচেত্তিনোর অনেক সম্মান প্রাপ্য। তিনি কিছুই জিতেননি, কিন্তু সম্ভবত এটাই হয়তো তাঁর সবচেয়ে বড় আক্ষেপ। কিন্তু দেখুন বাজেট নেই, কোনো খেলোয়াড় কিনে না, এমন এক ক্লাবকে কোথায় নিয়ে গেছেন। তিনি তরুণদের তৈরি করেছেন, রোমাঞ্চকর ফুটবল খেলিয়েছেন তাদের। এটাই তাঁকে বিশ্বমানের বানিয়েছে।’

default-image

পচেত্তিনোকে ইউনাইটেডের দায়িত্ব দিলে দলটি আরও ভালো করবে বলে মনে করেন ও’হারা। টটেনহামকে বড় এক শক্তি বানিয়েই নাকি সে সামর্থ্যের কথা জানিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন। ও’হারার ভাষায়, ‘প্রতি মৌসুমে টটেনহামকে সেরা চারে থাকার নিশ্চয়তা দিতেন পচেত্তিনো। তিনি ওদের চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে নিয়ে গেছেন। সে রাতে ওরা বাজে খেলেছে। কিন্তু ম্যানেজার হিসেবে পচেত্তিনো অবিশ্বাস্য। কীভাবে তাঁকে অবিশ্বাস্য বলবেন না আপনি? দেখুন তিনি সাউদাম্পটনে কী করেছেন এবং টটেনহাম হটস্পারে থাকতে কী করেছেন। তাঁর হাতে ইউনাইটেড দলকে ছেড়ে দিন। দেখবেন এই দলটাকেই তিনি অন্য উচ্চতায় তুলে নিয়ে যাবেন।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0