বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তাঁর ক্লাব ইন্টার মিলান এরই মধ্যে সেটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে। পাশাপাশি অন্য কোনো দেশে তিনি চাইলে হয়তো শরীরের এ অবস্থায়ই খেলা চালিয়ে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছে ইন্টার। এর অর্থ তো পরিষ্কার, এরিকসেনকে ছেড়ে দিতে তৈরি ইন্টার। ইতালিয়ান ফুটবলে এরিকসেন-অধ্যায় শেষ হতে যাচ্ছে, তা বলাই যায়।

গত জুনে ইউরোর সময়ে হার্ট অ্যাটাকের শিকার হওয়ার কিছুদিন পর এরিকসেনের হৃদ্‌যন্ত্রের সুস্থতার জন্য বসানো হয় কার্ডিওভারটার ডিফিব্রিলেটর (আইসিডি) যন্ত্র। যেটি হার্ট অ্যাটাক হওয়ার মতো মুহূর্তে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হৃদ্‌স্পন্দন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করে।

কিন্তু শরীরে এই যন্ত্র নিয়ে এরিকসেন ইতালিয়ান ফুটবলে খেলতে পারবেন না বলে গত আগস্টেই জানিয়ে দিয়েছিলেন ইতালিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের টেকনিক্যাল সায়েন্টিফিক কমিটির সদস্য ফ্রান্সেসকো ব্রাকোনারি।

default-image

সেটির পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার ইন্টার মিলান বিবৃতিতে লিখেছে, ‘এরিকসেনের (ক্লাবের খেলোয়াড় হিসেবে) নিবন্ধনবিষয়ক অধিকারের পরিপ্রেক্ষিতে এটা বলতে হচ্ছে যে ২০২১ সালের জুনে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে যে গুরুতর অসুস্থতার শিকার হয়েছেন তিনি, এরপর এরিকসেনকে এই মৌসুমে কোনো ধরনের খেলা থেকে সাময়িকভাবে বিরত রাখছে ইতালিয়ান চিকিৎসাবিষয়ক কর্তৃপক্ষ।’

তার মানে ইন্টারে তো আর তাঁর খেলা হচ্ছে না। সে ক্ষেত্রে অন্য কোনো ক্লাবে খেলার কথাই ভাবতে হবে এরিকসেনকে।

default-image

ইন্টারও বিবৃতিতে সেটি লিখেছে, ‘যদিও তাঁর এখনকার অবস্থায় ইতালিতে খেলাধুলার ক্ষেত্রে যে ফিটনেস দরকার, সেটি তাঁর নেই। তবে অন্য কোনো দেশে তিনি হয়তো খেলা চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি পাবেন, সে ক্ষেত্রে অন্য দেশে তিনি প্রতিযোগিতামূলক ফুটবল শুরু করতে পারবেন।’

গত বছরই টটেনহাম হটস্পার থেকে ইন্টারে নাম লেখান এরিকসেন। দলটির হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৩ ম্যাচ খেলে ৪টি গোল করেছেন তিনি। তবে তাঁর ইংল্যান্ডে খেলার সুযোগ তৈরি হতে পারে।

ইংলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এফএ) এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডের নিয়ম অনুযায়ী হৃদ্‌যন্ত্রজনিত জটিলতা আছে বা হার্ট অ্যাটাকের শিকার কোনো খেলোয়াড়ের শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে দেখবেন এফএ নিয়োজিত একজন স্পোর্টস কার্ডিওলজিস্ট। তাঁর ছাড়পত্র পেলে ইংল্যান্ডে খেলতে নিষেধাজ্ঞা থাকবে না এরিকসেনের।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন