default-image

করোনা মহামারি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ইরানে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আজ জানিয়েছে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ২০০। ইরানের যা একদিনে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে করোনার প্রকোপ ইরানেই সবচেয়ে বেশি। অবস্থা এমন হওয়ায় নিরাপদে নেই ইরানের ফুটবলও। বরং বিপর্যয়ের মধ্যে আছে বলাই ভালো। সংবাদ সংস্থা এএফপি আজ জানিয়েছে, ইরানের অন্যতম সেরা ক্লাব ইশতেগলালে বড় আকারে সংক্রমিত হয়েছে করোনা। ক্লাবটির ১১জন ফুটবলার করোনায় সংক্রমিত।

ইশতেগলালের ক্লাবের ১১ ফুটবলার এবং আরও এক স্টাফ আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। ইরানের সংবাদ সংস্থা 'ইরনা' জানিয়েছে 'খেলোয়াড় ও স্টাফ মিলিয়ে মোট ৬১জনের পরীক্ষা করা হয়।' তেহরানের হাসপাতাল মাসিয়া-দানচেভারির বিবৃতিও প্রকাশ করেছে তারা, 'পরীক্ষায় মোট ১২জনের—দলীয় চিকিৎসক ও খেলোয়াড়েরা—করোনায় সংক্রমিত হওয়া ধরা পড়েছে।' ইশতেগলালের অনুরোধেই করোনা পরীক্ষা করা হয় খেলোয়াড়দের।

করোনা মহামারিতে প্রায় চার মাস বন্ধ ছিল ইরানের ঘরোয়া ফুটবল লিগ। ২৫ জন লিগ পুনরায় মাঠে গড়ানোর পর টেবিলে ষষ্ঠ স্থানে আছে ইশতেগলাল। শুধু এ ক্লাবেই নয়, দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ক্লাব ফুলাদ আহওয়াজের ১১ ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত। এ ছাড়াও আরও ক্লাবটির আরও ৫জন স্টাফ করোনায় সংক্রমিত। মোট ১৬জন করোনা পজিটিভ নিয়ে বেশ বিপদেই আছে ক্লাবটি।

দুইবারের এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন ইশতেগলাল। ১৯৯১ সালে বাংলাদেশের মাটিতে এশিয়ান ক্লাব কাপের শিরোপা জিতেছিল ক্লাবটি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন