বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সেটিই দেখা গেল গত রাতে। বায়ার্নকে হারিয়ে চমক জাগিয়েছে বরুসিয়া ম’গ্লাডবাখ। প্রথমে এগিয়ে থেকেও পরে দুই গোল খেয়ে ২-১ গোলে হেরেছে বাভারিয়ানরা। বায়ার্নের হয়ে গোল করেছেন যথারীতি রবার্ট লেভানডফস্কি। ম’গ্লাডবাখের হয়ে দুই গোল অস্ট্রিয়ান মিডফিল্ডার স্টেফান লাইনার ও জার্মান মিডফিল্ডার ফ্লোরিয়ান নয়হাউজের।

ফিফা বেস্ট পুরস্কারের শীর্ষ তিন খেলোয়াড়ের তালিকায় মেসির পাশাপাশি লেভানডফস্কি আছেন, সেটা জানা গেছে গতকাল। গোল করে সে সুসংবাদ উদ্‌যাপন করতে পারলেও শেষটা ভালো হয়নি এই পোলিশ স্ট্রাইকারের।

default-image

তবে বায়ার্নের এই হারের পেছনে করোনা আর চোটের ভূমিকাও রয়েছে। করোনার কারণে একাধিক খেলোয়াড় মাঠের বাইরে দলটার। ফরাসি উইঙ্গার কিংসলে কোমান থেকে শুরু করে মিডফিল্ডার করেনতাঁ তোলিসো, অধিনায়ক ম্যানুয়েল নয়্যার, কানাডিয়ান লেফটব্যাক আলফোনসো ডেভিস, জার্মান উইঙ্গার লিরয় সানে, ফরাসি সেন্টারব্যাক লুকাস এর্নান্দেজ, দায়োত উপামেকানো, তাঙ্গি নিয়াংজু সবাই কোভিডে আক্রান্ত। চোটের কারণে মাঠের বাইরে আছেন মিডফিল্ডার লিওন গোরেৎস্কা।


মিডফিল্ডার মার্সেল সাবিৎসারকে খেলানো হয়েছে লেফটব্যাক হিসেবে, আনকোরা মালিক টিলমান খেলেছেন উইংয়ে। ফরোয়ার্ড জামাল মুসিয়ালাকে খেলানো হয়েছে সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে, মূল একাদশে জায়গা না পাওয়া স্প্যানিশ মিডফিল্ডার মার্ক রোকাকে বহুদিন পর দেখা গেছে লেভানডফস্কিদের সঙ্গে, মূল একাদশে। বিকল্প হিসেবে তরুণ লুকাস কোপাদো আর পল ওয়ানারকে নামিয়ে দিয়েছিলেন কোচ ইউলিয়ান নাগলসমান। এদের মধ্যে ওয়ানার আরা ১৫ দিন আগেই ১৬ বছরে পড়েছেন!

default-image

সব মিলিয়ে ভাঙাচোরা এক দল নিয়েই নিজেদের মাঠে নেমেছিল বায়ার্ন। আর সেটিই সাহায্য করল ম’গ্লাডবাখকে, অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনা থেকে ফিরল স্মরণীয় এক জয় নিয়ে।

১৮ মিনিটেই লেভানডফস্কি এগিয়ে দিয়েছিলেন বায়ার্নকে। কিন্তু ৩১ মিনিটের মধ্যেই দুই গোল করে ম’গ্লাডবাখকে এগিয়ে দেন নয়হাউজ ও লাইনার। তবে ম্যাচ হেরেও নয় পয়েন্টের ব্যবধানে শীর্ষেই আছে বায়ার্ন। তবে আজ ফ্রাঙ্কফুর্টের মাঠে গিয়ে ডর্টমুন্ড যদি জিতে আসতে পারে, তাহলে সে ব্যবধান কমে দাঁড়াবে ছয়ে। আর তাহলেই রং হারানো বুন্দেসলিগা একটু হলেও জমজমাট হবে!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন