default-image
>হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ রিয়াল মাদ্রিদের নাম উচ্চারণ করেননি। তবে কথাটা যে রিয়ালকে উদ্দেশ করে তা এমনিতেই পরিষ্কার। বার্সেলোনা সভাপতির মতে, ভিএআর প্রযুক্তি নাকি শুধু এক দলকেই সহায়তা করছে।

হোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ রিয়াল মাদ্রিদের নাম উচ্চারণ করেননি। কিন্তু লা লিগায় সাম্প্রতিক সময় বিচারে যা বলেছেন তাতে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দলের নাম উচ্চারণের দরকার পড়ে না। কথাটা যে রিয়ালকে উদ্দেশ করে তা এমনিতেই পরিষ্কার। বার্সেলোনা সভাপতির মতে, ভিডিও সহকারি রেফারি (ভিএআর) বা 'ভার'খ্যাত প্রযুক্তি নাকি এক দলকেই সহায়তা করছে।

লা লিগায় কাল রাতে অ্যাথলেটিক বিলবাও–রিয়াল মাদ্রিদ ম্যাচের পর এ বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। করোনাভাইরাস মহামারিতে স্থগিত লিগ মাঠে ফেরার পর রিয়ালের ম্যাচে পক্ষপাত করছেন ভার ও রেফারি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন অভিযোগ বার্সার সমর্থকদের। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলোও এ নিয়ে পক্ষে–বিপক্ষে দুই ভাগে বিভক্ত। বার্সা সভাপতি বার্তোমেউ নিজেও আর চুপ করে থাকতে পারলেন না। 'মুভিস্টার'কে বার্সা সভাপতি বলেছেন, 'সবাই যে মান চায় ভিএআর তা পূরণ করতে পারছে না। লকডাউন শেষে এমন কিছু ম্যাচ হয়েছে যেগুলো পক্ষপাতদুষ্ট। এক দলের প্রতি পক্ষপাত করা হয়েছে এবং অনেক দল ছিল দূর্ভাগা।'

বিলবাওয়ের বিপক্ষে কাল ১–০ গোলে জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন সার্জিও রামোস। এই পেনাল্টির বৈধতা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন। সাদা চোখের বিশ্লেষণ বলে, বক্সে মার্সেলোর পা মাড়িয়েছেন বিলবাওয়ের দানি গার্সিয়া, পেনাল্টির সিদ্ধান্ত ঠিকই আছে। ধারাভাষ্যকারও তখন বলছিলেন, এটা পেনাল্টি। আর মার্কার রেফারিং বিশেষজ্ঞ আন্দুহার অলিভার রেডিও মার্কাতে বলেছেন, 'প্রযুক্তির সাহায্যে আমরা দেখতে পাচ্ছিলাম যে দানি গার্সিয়া মার্সেলোর পা মাড়িয়েছেন। এ ক্ষেত্রে পেনাল্টি দিতেই হতো।'

এর পাশাপাশি বিতর্কের আগুনে ঘি ঢেলেছে আরেকটি ঘটনা। রিয়ালের ওই পেনাল্টির কিছুক্ষণ পরই রিয়াল বক্সে বিলবাওয়ের রাউল গার্সিয়ার পা মাড়িয়ে দেন রামোসই। কিন্তু রেফারি সেটি দেখেননি, ভিএআরও নয়। এ দুটি ঘটনাকে দুই দলের সমর্থক থেকে বিশ্লেষক দেখছেন যে যাঁর মতো করে। লা লিগার সাবেক রেফারি ইতুরালদে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম 'এএস'–এর রেফারি বিশ্লেষক। তাঁর মতে, 'রিয়ালের পেনাল্টি পাওয়া ঠিক ছিল। তবে বিলবাওকে পেনাল্টিটা দেওয়া হয়নি।' শুধু তাই নয়, বার্সেলোনা ও অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের খেলোয়াড়েরাও রিয়ালের প্রতি রেফারির পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের অভিযোগ তুলেছেন।

খুব স্বাভাবিকভাবেই বার্সার এ নিয়ে বেশি মাথাব্যথা হওয়ায় কথা। ৪ ম্যাচ হাতে রেখে বার্সার সঙ্গে ৪ পয়েন্ট ব্যবধানে শীর্ষে রিয়াল। শিরোপা দৌড়ে পিছিয়ে পড়ার পেছনে পরোক্ষভাবে রেফারির এই আচরণকে দুষছেন বার্সার অনেক সমর্থক। এদিকে বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েন বার্তোমেউয়ের মন্তব্য নিয়ে তেমন আগ্রহী নন। তাঁর ভাষায়, 'এ নিয়ে কিছু বলতে চাই না। তিনি কী বলেছেন তা জানি না। সভাপতি যদি এমন কিছু বলে থাকেন তাহলে আমার আর কি বলার আছে?' তবে ভিএআর প্রযুক্তির পক্ষপাত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ইঙ্গিত করেছেন সেতিয়েন, 'ভিএআর আমি খুব খুব কম বুঝি। ভেবেছিলাম এ প্রযুক্তি ফুটবলকে আরও নিরপেক্ষ করবে। কিন্তু এ মুহূর্তে সেটি পর্যাপ্ত মনে হচ্ছে না।'

লা লিগায় এ নিয়ে চার ম্যাচের তিনটিতে পেনাল্টি থেকে করা গোলে জিতেছে রিয়াল। প্রতিবারই ১–০ গোলে জিতেছে জিনেদিন জিদানের দল। বার্সা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে এর আগে বলেছিলেন, পক্ষপাতদুষ্ট সিদ্ধান্ত বন্ধ না করলে রিয়ালকে থামানো যাবে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0