লিভারপুলকে আরেকটি দুঃসংবাদ উপহার দিল আন্তর্জাতিক বিরতি।
লিভারপুলকে আরেকটি দুঃসংবাদ উপহার দিল আন্তর্জাতিক বিরতি। ছবি: টুইটার

গত সপ্তাহটা কী দারুণভাবেই না শেষ হলো অ্যান্ডি রবার্টসনের! স্কটল্যান্ডকে ২৩ বছর পর কোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে নিয়ে গেছেন এই লেফটব্যাক। কিন্তু ২০২১ ইউরো নিশ্চিত করার রাতেই ক্লাবের জন্য শঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন স্কটিশ অধিনায়ক।

পেনাল্টিতে গড়ানো ম্যাচের শেষ দিকে হ্যামস্ট্রিংয়ে টান পড়েছিল রবার্টসনের। সেটাই কাল হয়ে উঠেছে তাঁর জন্য। এখনো চোট কতটা গুরুতর, সেটা জানা যায়নি। তবে আজ নেশনস লিগে স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে খেলেননি রবার্টসন, ম্যাচটা স্কটল্যান্ড হেরে গেছে ১-০ গোলে।

বিজ্ঞাপন

রবার্টসনের এ চোট নির্ঘাত লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের কপালের ভাঁজ বাড়িয়ে দিচ্ছে। রক্ষণের মূল ভরসা সেন্টারব্যাক ভার্জিল ফন ডাইক তো প্রায় পুরো মৌসুমের জন্যই ছিটকে গেছেন। এবারের আন্তর্জাতিক বিরতির আগে লিগে সর্বশেষ ম্যাচে (ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে) চোটে পড়েছেন রাইটব্যাক ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আরনল্ড। ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে গিয়ে অনুশীলনে চোট পেয়েছেন আরেক সেন্টার জো গোমেজ, তাঁরও মাঠে ফিরতে কয়েক মাস লাগবে বলে অনুমান। আর এবার হ্যামস্ট্রিং কেড়ে নিয়েছে লেফটব্যাক রবার্টসনকে।

অর্থাৎ স্বাভাবিক সময়ে যে চারজনকে নিয়ে রক্ষণ সাজান ক্লপ, সে চারজনই এখন মাঠের বাইরে। আগামী সপ্তাহে আবার শুরু হবে ক্লাব ফুটবলের ব্যস্ততা। রক্ষণভাগে কাকে নামাবেন, সেটা নিয়ে ভালো দুশ্চিন্তাতেই পড়ার কথা লিভারপুলের।

বৃহস্পতিবার সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে চোট নিয়েও সাডেন ডেথে পেনাল্টি শট নেওয়ার কথা ছিল রবার্টসনের। তবে গোলরক্ষক ডেভিড মার্শাল সার্বিয়ার শেষ শটে আলেক্সান্দর মিত্রোভিচের শট ঠেকিয়ে জিতিয়ে দেন স্কটল্যান্ডকে, আর রবার্টসনকে বাঁচিয়ে দেন হ্যামস্ট্রিংয়ে টান নিয়ে পেনাল্টি নেওয়ার যন্ত্রণা থেকে।

default-image

কিন্তু সেদিনই রবার্টসনকে নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছিল। স্কটল্যান্ডের কোচ স্টিভ ক্লার্ক লিভারপুল সমর্থকদের মুখ কালো করে দেওয়ার খবরটি দিয়েছিলেন, ‘দলে যাদের নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে, তাতে অ্যান্ডি রবার্টসনই সবচেয়ে বাজে অবস্থায় আছে।’

আজ স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে স্কটল্যান্ড স্কোয়াডে জায়গা হয়নি রবার্টসনের। ক্লপ এখন আশায় থাকবেন, শুধু সাবধানতার অংশ হিসেবেই আজ খেলছেন না রবার্টসন। কিন্তু যেহেতু হ্যামস্ট্রিংয়ের সমস্যা, আগ বাড়িয়ে আশাবাদ দেখাতে পারছেন না কেউই।

বিজ্ঞাপন

ইউরোপে নেশন লিগে এরপর ইসরায়েলের সঙ্গে ম্যাচ খেলবে স্কটল্যান্ড। সে ম্যাচের আগেই হয়তো রবার্টসনের পুরো অবস্থা জানা যাবে।

এমনিতেই ফন ডাইক, গোমেজ ও আরনল্ডের পক্ষে মাঠে নামা সম্ভব নয়। ওদিকে চোটে পড়ে বাইরে আছেন রক্ষণাত্মক মিডফিল্ডার ফাবিনিও। সাধারণত পছন্দের ডিফেন্ডারকে হাতে না পেলে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারকে নামিয়ে দিতেন ক্লপ। এবার সেটাও সম্ভব হচ্ছে না।

রবার্টসন সময়মতো সুস্থ না হলে লেফটব্যাক হিসেবে মাঠে নামবেন এ মৌসুমেই ক্লাবে যোগ দেওয়া গ্রিক কনস্তানতিনোস সিমিকাস। ক্লপের সমস্যা অবশ্য রক্ষণেই শেষ হচ্ছে না। চোটের কারণে নেই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার থিয়াগো আলকানতারা। আর মিসরের হয়ে খেলতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ফরোয়ার্ড মো সালাহ।

লেস্টার সিটির বিপক্ষে আগামী সপ্তাহে কঠিন এক পরীক্ষাই দিতে হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।

মন্তব্য পড়ুন 0