বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এ মৌসুমে লিগে ইউনাইটেড খুব বাজে অবস্থায় আছে। অর্ধেক ম্যাচ শেষ হয়ে যাওয়ার পরও লিগে সাতে ইউনাইটেড। এই অবস্থান থেকে উন্নতি না হলে আগামী মৌসুমে ইউরোপে দেখা যাবে না ইউনাইটেডকে। রেড ডেভিলদের এমন ছন্দপতনের পেছনে রোনালদোর উপস্থিতিকেই মূল কারণ মনে করছেন আহবনলাহোর।

টকস্পোর্টকে বলেছেন, ‘রোনালদো যাওয়ার আগে, ব্রুনো ফার্নান্দেজ ছিল দলের মূল খেলোয়াড়। এখন রোনালদো মূল খেলোয়াড়। উলভসের বিপক্ষে রোনালদো অধিনায়ক ছিল। রোনালদো যোগ দেওয়ার আগে হ্যারি ম্যাগুয়ার না থাকলে ফার্নান্দেজই অধিনায়ক হতো। আর এখন সে বেঞ্চে থাকে। নির্ঘাত টানাপোড়েন চলছে এখানে। পুরো পরিস্থিতির দিকে তাকালে, উলে গুনার সুলশার নিশ্চয় বুঝতে পারছেন, রোনালদোকে টেনে এনে ভুল করেছেন, একদম পরিষ্কার।’

default-image

এবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে লিডসকে ৫-১ গোলে হারিয়ে মৌসুম শুরু করেছিল ইউনাইটেড। প্রথম তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট পেয়েছিল ইউনাইটেড। এরপর রোনালদো দলে যোগ দিয়েছেন। পরের ১৬ ম্যাচে ইউনাইটেড ২৪ পয়েন্ট পেয়েছে। এর মধ্যে রোনালদোই এনে দিয়েছেন ১৩ পয়েন্ট। ৮ গোল ও ৩টি গোলে সহায়তা করে রোনালদোই দলের মূল খেলোয়াড়। চ্যাম্পিয়নস লিগেও ইউনাইটেডকে গ্রুপ শীর্ষস্থান এনে দিয়েছে রোনালদোর ৬ গোল। কিন্তু আগবনলাহোরের ধারণা, রোনালদো না থাকলে ইউনাইটেডের তিন তরুণ ফরোয়ার্ড এর চেয়েও ভালো করতেন।

default-image

আগবনলাহোরের ধারণা, গোল করলেও দলের ভারসাম্য নষ্ট করছেন রোনালদো। সে জায়গায় তরুণদের সুযোগ দিলেই বেশি ভালো করবে ইউনাইটেড। তাই রোনালদোকে বিক্রি করে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি, ‘হ্যাঁ, রোনালদো গোল করেছেন, কিন্তু তিনি যে গোল (বার্নলির বিপক্ষের করা গোল) করেছেন, সেটা (ম্যাসন) গ্রিনউডও করত। (মার্কাস) রাশফোর্ডও ওই অবস্থান থেকে গোল করত। আমার মতে, আগামী গ্রীষ্মেই রোনালদোকে ছেড়ে দেওয়া উচিত। গ্রিনউড, (জাডোন) সাঞ্চো ও রাশফোর্ডকে একসঙ্গে খেলতে দিন।’

এই তিনজনকে নিয়েই এই মৌসুমের পরিকল্পনা ছিল ইউনাইটেডের। শেষ মুহূর্তে রোনালদোকে দলে টানার সুযোগ পেয়ে লোভ সামলাতে পারেনি ইউনাইটেড। কিন্তু এতে তরুণ তিন ফরোয়ার্ড একটু আড়ালে চলে গেছেন।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন