default-image
>

লিগ ওয়ানে কাল অবিশ্বাস্য ব্যর্থতায় একটি গোল করতে পারেননি পিএসজি ফরোয়ার্ড এরিক ম্যাক্সিম চৌপো-মোটিং

গোল অনেকভাবেই মিস হতে পারে। কিন্তু পিএসজি ফরোয়ার্ড এরিক ম্যাক্সিম চৌপো-মোটিং কাল যেভাবে গোল মিস করেছেন, তা যেকোনো ফরোয়ার্ডের জন্যই রীতিমতো দুঃস্বপ্ন। ভক্তদের ভুলতেও সময় লাগবে অনেক দিন। পিএসজি ভক্তদের এই ‘কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা’ হিসেবে যোগ হয়েছে আরও একটি বিষয়, চৌপো-মোটিং গোলটি করতে না পারায় স্ট্রাসবুর্গের বিপক্ষে ম্যাচটি (২-২) জিততে পারেনি পিএসজি। জিতলে কালই লিগ জয় নিশ্চিত হতো টমাস টুখেলের দলের।

প্রথমার্ধের ১৩ মিনিটে মোটিংয়ের গোলেই এগিয়ে ছিল পিএসজি। ঠিক এর ১৩ মিনিট পরই সমতায় ফেরে স্ট্রসবুর্গ। এরপর চোয়াল ঝুলিয়ে দেওয়ার মতো মিসটি করেন ক্যামেরুনের এই স্ট্রাইকার। ডান প্রান্ত থেকে তাঁর সতীর্থ ক্রিস্টোফার এনকুনুকু গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে শট নিয়েছিলেন। বল জালে জড়ানোর পথেই যাচ্ছিল। কিন্তু গোল লাইন পার হওয়ার একেবারে শেষ মুহূর্তে চৌপো মোটিং কী বুঝে বলটি থামালেন কে জানে! সম্ভবত নিজে গোলটি করতে চেয়েছিলেন বলে বাঁ পা দিয়ে টোকা মেরেছিলেন। কিন্তু একটু আগেভাগেই পা চালিয়ে দেওয়ায় বল উল্টো তাঁর পায়ে লেগে থেমে যায়।

২-১ গোলে পিছিয়ে থাকা এই ম্যাচের শেষ দিকে পিএসজির হয়ে সমতাসূচক গোলটি করেন প্রেসনেল কিমপেমবে। লিঁলের (৩১ ম্যাচ) সঙ্গে ২০ পয়েন্ট ব্যবধান নিয়ে টেবিলের শীর্ষে পিএসজি (৩০ ম্যাচ)। কাল ম্যাচটা জিতলেই লিগ শিরোপা জয় নিশ্চিত হয়ে যেত পিএসজির। সেটি হয়নি চৌপো-মোটিংয়ের অবিশ্বাস্য গোল মিসের জন্য। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেরই মত, এটা ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে মিস না হলেও অন্যতম বাজে মিস তো বটেই। চৌপো-মোটিং অবশ্য কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন ম্যাচ শেষে, ‘এটা ভীষণ লজ্জার, কারণ বলটা গোল হওয়ার পথেই ছিল। আমি দুঃখিত।’

অবিশ্বাস্য সেই গোল মিসের ভিডিও লিংক:

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0