বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এমবাপ্পেকে রিয়াল চার বছর ধরেই দলে চাচ্ছে। একসময় পচেত্তিনোর ব্যাপারেও এমন আগ্রহ দেখিয়েছিলেন রিয়াল সভাপতি। কিন্তু টটেনহামের সভাপতি ডেনিয়েল লেভির সঙ্গে দর-কষাকষিতে পেরে ওঠেননি কখনো। পচেত্তিনোরও রিয়ালে আর যাওয়া হয়নি। গত জানুয়ারিতে বরং পিএসজির কোচ হওয়ার প্রস্তাব পেতেই লুফে নিয়েছেন সেটি।

নতুন ক্লাবের হয়ে শুরুটা তাঁর ঠিক ভালো হয়নি। ২০১৭ সালের পর এই প্রথম লিগ আঁর শিরোপা হারিয়েছে পিএসজি। চ্যাম্পিয়নস লিগেও সেমিফাইনালে পিএসজিকে নিয়ে রীতিমতো খেলছে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি। তবে পিএসজি পচেত্তিনোর ওপর আস্থা হারায়নি। এবারের দলবদলে সম্ভাব্য সব সেরাকে দলে টেনে এনেছে। লিওনেল মেসি, সের্হিও রামোস, জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মা, আশরাফ হাকিমিরা দলে ঢুকেছেন।

default-image

এমন সুখের মাঝেই আগুন জ্বেলেছেন এমবাপ্পে। জুলাইয়ের শেষ নাগাদ ক্লাবকে জানিয়ে দিয়েছেন, আর ভালো লাগছে না তাঁর। এমনকি মেসি দলে যোগ দেওয়ার পর নিজের সিদ্ধান্ত বদলাননি। কিন্তু ক্লাব সভাপতি নাসের আল খেলাইফি ও ক্রীড়া পরিচালক লিওনার্দো গোঁ ধরে থাকায় পিএসজি ছাড়া হয়নি এমবাপ্পের। কিছুদিন ধরে এমবাপ্পে যে ইঙ্গিত দিচ্ছেন, তাতে আগামী মৌসুমে মুফতেই তাঁর ক্লাব ছাড়ার সম্ভাবনাই বেশি।

পচেত্তিনো যদিও আশা ছাড়ছেন না। রেডিও কোপে ও রেডিও মার্কার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এমবাপ্পে-পরিস্থিতি নিয়ে বলেছেন, ‘এমবাপ্পে ভালো আছে। সে খুব শান্ত ছেলে, দারুণ ব্যক্তিত্ব এবং খুব সহজে সবার সঙ্গে মেশে। সে যেকোনো ব্যাপারে খুব পরিষ্কার চিন্তা করতে পারে এবং ফুটবল ভালোবাসে। ২২ বছর বয়সের তুলনায় সে অনেক পরিণত।’

default-image

একদিকে এমবাপ্পে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন, বলেছেন পিএসজি ছাড়তে চেয়েছিলেন। কিন্তু ক্লাব রাজি না হওয়ায় সম্মান দেখিয়ে জোর করেননি। আরএসি ওয়ান ও লে’কিপে দেওয়া দুই সাক্ষাৎকারেই পিএসজি অধ্যায় যে এ বছরই শেষ হয়ে যাবে, সে ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন এমবাপ্পে। ওদিকে তাঁর মা আবার জানিয়েছেন, চুক্তি নবায়নের কাজ ভালোভাবেই এগিয়ে চলেছে। প্রথম কথায় রিয়াল সমর্থকেরা যেমন আশাবাদী হয়ে উঠেছিলেন, পরেরবারে উচ্ছ্বসিত হওয়ার পালা ছিল পিএসজি সমর্থকদের।

পচেত্তিনোর কথায় অবশ্য দুই পক্ষই আশা খুঁজে পাবে, ‘যে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সেটা কিলিয়ানই নেবে এবং ক্লাব তাঁকে ধরে রাখার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে। কারণ, আমরা এমন একজনের ব্যাপারে কথা বলছি যে ২২ বছর বয়সেই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের একজন।’

পিএসজি কোচের ধারণা, এখনো যেকোনো কিছুই সম্ভব। তাঁর ধারণা, এমবাপ্পের বিশ্বসেরা হওয়ার স্বপ্ন পিএসজিতেই পূরণ করা সম্ভব, আর সেটা তাঁকে বোঝানো গেলেই পরিস্থিতি পাল্টে যাবে, ‘আমি যা বুঝছি এখনো যেকোনো কিছুই সম্ভব এবং ভিবিষ্যতে অনেক কিছুই হতে পারে। কয়েক মাস আগের অবস্থান ভবিষ্যতে বদলাতেও পারে। তাঁকে এমন প্রস্তাব দেওয়া, যাতে সে থাকতে রাজি হয় এবং খুশি হয়, সে ইচ্ছা ও ক্ষমতা দুটোই আছে পিএসজির। ওর মত পরিবর্তনের সম্ভাবনা এখনো আছে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন