বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এবারের ইউরোর আগেই প্রথমবারের মতো এমবাপ্পের সঙ্গে খেলার সুযোগ হয়েছে বেনজেমার। পাঁচ বছর জাতীয় দলে ব্রাত্য থাকা এই ফরোয়ার্ড দ্রুত এমবাপ্পের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতিয়ে ফেলেছেন। মাঠে ও মাঠের বাইরে দুজনের রসায়ন দেখে আশায় বুক বেঁধেছিল রিয়াল সমর্থকেরা। ইউরো শেষে দলবদলের মৌসুমে সে আশা বাড়িয়ে দিয়েছিলেন এমবাপ্পে, যখন পিএসজির চুক্তি নবায়নের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে রিয়ালে যাবেন বলে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন।

default-image

সেটা আর সম্ভব হয়নি, ক্লাবে অন্তত এ মৌসুমে দুজনের জুটি গড়া হচ্ছে না। তবে আগামী সপ্তাহে আবার এমবাপ্পের সঙ্গে জুটি গড়বেন বেনজেমা। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে ফ্রান্সের জার্সিতে নামবেন দুজন। তার আগে ক্লাবের সমর্থকদের আশ্বস্ত করেছেন বেনজেমা। লে’কিপকে বলেছেন, ‘এমবাপ্পে নিজে বলেছে। সে অন্য কিছু চাইছে। একদিন না একদিন সে রিয়াল মাদ্রিদে খেলবেই। আমি জানি না কখন। কিন্তু সে আসবে। এটা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার।’

এমবাপ্পের চুক্তির আর মাত্র ৯ মাস বাকি। আগামী জানুয়ারিতেই চাইলে অন্য যেকোনো ক্লাবের সঙ্গে চুক্তির কথা স্বাধীনভাবে বলে রাখতে পারবেন। তখন সিদ্ধান্ত নিতে যেন সুবিধা হয়, এমবাপ্পের জন্য সে টোপটা দিয়ে রাখলেন অন্যভাবে। বড় বড় তারকা না থাকলেও তরুণ সব প্রতিভার কারণে রিয়ালে এলে যে ভালো একটা স্কোয়াড পাবেন এমবাপ্পে, সেটাই যেন জানিয়ে দিলেন বেনজেমা।

default-image

‘রিয়াল মাদ্রিদ এখনো বিশ্বের সেরা ক্লাব। পুনর্গঠন হোক বা না হোক, এটা নতুন ফুটবল, নতুন প্রজন্ম, নতুন খেলোয়াড়। আমাদের তরুণ খেলোয়াড়ে বিনিয়োগ করতে হবে, যাতে একদিন তারাই অসাধারণ খেলোয়াড় হতে পারে। আমি তো আছি ওদের সাহায্য করার জন্য। ওদের সঙ্গে অনেক কথা বলি। আমি চাই ওদের উন্নতি হোক। যখন আপনি অন্যদের উন্নতি করবেন, আপনি দলের উন্নতি করবেন এবং সেটাই আপনাকে অনেক তৃপ্তি দেবে।’ লে’কিপকে বলেছেন বেনজেমা।


জাতীয় দলের পর ক্লাবেও এমবাপ্পেকে সাহায্য করার সুযোগ পাবেন বেনজেমা?

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন