ইংলিশ ফুটবলে চতুর্থস্তরের দল হার্টলপুলের মিডফিল্ডার শেলটন। আজ স্কানথর্প ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে হার্টলপুল। কিন্তু দলটির কোচ গ্রায়েম লি জানিয়েছেন, শেলটন এই ম্যাচ খেলতে পারবেন না।

এই মৌসুমে হার্টলপুলের মাঝমাঠের মধ্যমণি হয়ে ছিলেন ৩৩ বছর বয়সী এই ফুটবলার। কিন্তু মাঠে নামার প্রস্তুতি রেখে শেলটনকে এখন সময় কাটাতে হচ্ছে হাসপাতালে। কারণ, কটনবাড দিয়ে কান খোঁচানোর (বদ) অভ্যাস আছে শেলটনের।

খোঁচাতে খোঁচাতে কানের একটু বেশি ভেতরে কটনবাড ঢোকানোর মাশুল গুণতে হচ্ছে তাঁকে। কটনবাডটি কান থেকে আর বের করতে পারেননি। দিশেহারা হয়ে পড়া শেলটন অসুস্থ হয়ে পড়েন। মাথা ঘোরা অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

default-image

বিবিসি রেডিওকে হার্টলপুলের কোচ গ্রায়েম লি বলেন, ‘মার্কের কানের ভেতর কটনবাড আটকে আছে। এটা একটু বেশি ভেতরে ঢুকেছে। মাথা ঘোরানো অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে।’

ফুটবলে এমন অদ্ভুত চোটের ঘটনা এই প্রথম নয়। উইম্বলডন ক্লাব এবং ইংল্যান্ড জাতীয় দলের সাবেক গোলকিপার ডেভিড বিস্যান্ট একবার পায়ের ওপর সালাদের বোতল ফেলে দিয়ে চোট পান এবং মাঠের বাইরে থাকতে হয় কিছুদিন। ঘটনাটি আজ থেকে ২৯ বছর আগের। অ্যাস্টন ভিলার সাবেক স্ট্রাইকার দারিয়ুস ভেসেল আবার এক কাঠি সরেস।

২০০৩ সালে পায়ের ফোস্কা অপসারণে ড্রিল মেশিন ব্যবহার করে বেশ কিছুদিন মাঠের ছিলেন ভেসেল। ওয়েলস ও বার্নলি মিডফিল্ডার ড্যারেন বার্নাড একবার ছোট্ট এক জলাশয়ে পড়ে গিয়ে চোট পান এবং পাঁচ মাস মাঠের বাইরে থাকতে হয়।

রিডিং ও মিডলসব্রো স্ট্রাইকার লেরয় লিটারের একবার শখ হয়েছিল বিছানায় স্ট্রেচিং করবেন। অর্থাৎ শরীর ছাড়ানোর ব্যায়াম করছিলেন বিছানায়। পায়ের মাংশপেশিতে চোট পেয়ে ছিটকে পড়েন মাঠের বাইরে। এভারটন এবং ইংল্যান্ডের সাবেক গোলকিপার রিচার্ড রাইট স্যুটকেস গোছানোর সময় ছাদের ঘর থেকে নিচে পড়ে যান।

কাঁধে বড় চোট পেয়েছিলেন তিনি। একসময়ের সবচেয়ে দামি ডিফেন্ডার ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবদন্তি রিও ফার্ডিনান্ড ক্যারিয়ারের শুরুতে একবার ফিফা গেমস খেলার সময় পা তুলে দিয়েছিলেন কফি টেবিলের ওপর। মাংশপেশিতে টান লাগায় চোট পেতে হয় এবং বেশ কিছুদিন মাঠের বাইরে থাকতে হয়।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন