default-image

করোনাভাইরাস মহামারিতে স্থগিত হওয়া ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ আবার ফিরেছে মাঠে। কথা ছিল, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখবেন খেলোয়াড়রা। কিন্তু তা কি মানা হচ্ছে? পুরোনো অভ্যাস পাল্টানো এতই সোজা!

প্রায় তিন মাস স্থগিত থাকার পর মাঠে ফেরানো হয় প্রিমিয়ার লিগ। দূরত্ব বজায় রাখতে বেশ কিছু নিয়ম বেঁধে দিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু গোল করা থেকে অন্য যে কোনো সময় খেলোয়াড়েরা অন্তত দূরত্ব বজায় রাখার কথা ভুলে যাচ্ছেন। বিশেষ করে পানি পানের বিরতির সময়।

পানি পানের বিরতি নিয়মটি কিছু বিষয় মাথায় রেখে চালু করেছে প্রিমিয়ার লিগ। বল, গোলপোস্ট, কর্নার ফ্লাগ জীবানুমুক্ত করা হয় এ সময়। খেলোয়াড়েরাও এই সময় নিজেদের জীবাণুমুক্ত করতে পারেন। কিন্তু বেশিরভাগ ম্যাচেই দেখা যাচ্ছে পানি পানের বিরতির সময়টুকু কৌশলগত আলোচনায় ব্যয় করছে ক্লাবগুলো। খেলোয়াড়দের একসঙ্গে রেখে কৌশল নিয়ে কথাবার্তা বলছেন কোচরা।

default-image

প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ তাই প্রমাদ গুনেছে। 'টেলিগ্রাফ' জানায় লিগের সবগুলো (২০) দলের সঙ্গে নিয়ে যোগাযোগ করেছে প্রিমিয়ার লিগ। পানি পানের বিরতি ও গোল উদযাপনে খেলোয়াড়েরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম মানতে ভুলে যাচ্ছে, তা বলা হয়েছে ক্লাবগুলোকে। ব্রিটেন সরকারের অফিশিয়ালের সঙ্গে কথা বলার পর ক্লাবগুলোকে লিখিতভাবে খেলোয়াড়দের দায়িত্ব স্মরণ করিয়ে দিয়েছে প্রিমিয়ার লিগ। করোনার মধ্যে তারা কোনো বাজে উদাহরণ তৈরি করতে নারাজ।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও দেখা যাচ্ছে একই দৃশ্য এবং সেটিও ইংল্যান্ডেই। জেমস অ্যান্ডারসনের উদযাপন নিয়ে কথা উঠেছে। সাউদাম্পটন টেস্টের তৃতীয় দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যান রোস্টন চেজকে তুলে নেওয়ার পর সতীর্থদের বুকে জড়িয়ে ধরেন ইংলিশ পেসার। অথচ আইসিসি নানারকম বিধিনিষেধ দিয়ে মাঠে ফিরিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এর মধ্যে খেলোয়াড়দের সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা অন্যতম শর্ত।
অ্যান্ডারসনের উদযাপনের সময় ধারাভাষ্যকার নাসের হুসেইন, 'সামাজিক দূরত্ব মানার বালাই নেই অ্যান্ডারসনের। পুরোনো অভ্যাস এত সহজে যায় না।' মজাটা হলো এই অ্যান্ডারসনই টেস্টের আগে জাতীয় দলের প্রস্তুতি ম্যাচে দূরত্ব বজায় রেখে উদযাপনে সক্রিয় ছিলেন। মাঠের কোণে কোণে রাখা স্যানিটাইজার দিয়ে হাতও ধুয়েছেন।

default-image

সংক্রমণ এড়াতে খেলোয়াড়দের নানা শর্ত বেঁধে দিয়েছে আইসিসি। সতীর্থদের জড়িয়ে ধরা, একই তোয়ালে কিংবা পানীয় বোতল ব্যবহারে জোরালভাবে নিরুৎসাহিত করেছে আইসিসি।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন