কাতারে কোয়ারেন্টিনের পাশাপাশি অনুশীলনও চান জেমি ডে
কাতারে কোয়ারেন্টিনের পাশাপাশি অনুশীলনও চান জেমি ডেছবি: প্রথম আলো

কাতারের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আবারও বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে ফিরতে পারে বাংলাদেশ। আগামী ৪ থেকে ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে এই ম্যাচটি খেলার সম্ভাবনা রয়েছে বাংলাদেশের। কাতার ফুটবল ফেডারেশন ফিফার কাছে আবেদন করেছে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলার ব্যাপারে। যেহেতু বাংলাদেশের সম্মতি রয়েছে তাই এখন শুধুই ফিফার অনুমতির অপেক্ষায় আছে দুই দেশ। কাতারে বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে খেলতে গিয়ে নিয়ম অনুসারে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বাংলাদেশকে। কিন্তু এই কোয়ারেন্টিনের সময়টাতে অনুশীলনের সুব্যবস্থা চান জাতীয় দলের কোচ জেমি ডে।

আজ বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে অনুশীলনের পর ইংলিশ কোচ নিজেদের চাহিদার কথাটা জানিয়ে রাখলেন, ‘ওখানে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে আমাদের। সে দেশের নিয়ম অনুসারে ম্যাচের দুই সপ্তাহ আগে যেতে হবে। প্রত্যেক ফুটবলার ও স্টাফদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার জন্য নির্দিষ্ট সেই দেশের নির্দেশনা মানাটা আমাদের জরুরি। কোয়ারেন্টিনের সময় আমরা জিম ও অনুশীলনের সুবিধা চাইব। হোটেলে স্বাস্থ্যসুরক্ষার নিরাপত্তাসহ এসব সুবিধা থাকলে সেখানে যেতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।’

default-image
বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচের আগে নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্র ম্যাচ নিয়েই যত মনোযোগ জেমির। আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বিকেল ৫টায় হবে ম্যাচ দুটো। এই ম্যাচ দুটি নিয়েই এখন ভাবছেন জেমি, ‘আমরা আপাতত কাতার ম্যাচ নিয়ে ভাবছি না। কারণ এখনো নিশ্চিত নই যে এই ম্যাচটা হচ্ছে। এটা এখনো আলোচনার পর্যায়ে আছে। আসলে আমাদের এখন সব মনোযোগ সামনের নেপালের ম্যাচ দুটোকে ঘিরে। এই দুটো ম্যাচ আমাদের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। যদি কাতারের সঙ্গে আমাদের ম্যাচ হয় তাহলে সেভাবেই আমাদের ওটার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।’

গত বছর অক্টোবরে কাতারের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে লড়াই করে হেরেছিল বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে ২-০ গোলে হারলেও সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারলে ম্যাচের ফল অন্য রকমও হতে পারত। তবে অ্যাওয়ে ম্যাচটাও কঠিন হবে বলেই মনে করেন জেমি, ‘করোনা পরিস্থিতির মধ্যে কাতার বাফুফেকে প্রস্তাব দিয়েছে। অবশ্যই এই ম্যাচ খেলা সম্ভব, যদি ফিফা রাজি থাকে। আমরা এখানে কাতারের সঙ্গে খেলেছি। ওখানে কঠিন একটা ম্যাচই হবে। এ জন্য আমাদের যথেষ্ট অনুশীলন এবং প্রস্তুতি নিতে হবে এই ম্যাচের আগে।’

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের চার ম্যাচ এখনো বাকি বাংলাদেশের। স্থগিত হওয়ার আগপর্যন্ত বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচটি খেলার কথা ছিল আফগানিস্তানের বিপক্ষে। এই ম্যাচ হবে বাংলাদেশে। এ ছাড়া ওমান ও ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটিও ঘরের মাঠেই খেলবে বাংলাদেশ। শুধু কাতারের বিপক্ষে ম্যাচটিই অ্যাওয়ে মাঠে হওয়ার কথা।

মন্তব্য পড়ুন 0