বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বার্সেলোনার ভবিষ্যৎ কোচ হিসেবে অনেকেই অনেকের নাম বলছেন। তাঁদের মধ্যে আছে বেলজিয়ামের কোচ রবের্তো মার্তিনেজের নামও। কেউ আবার বার্সেলোনার সাবেক প্লেমেকার জাভি হার্নান্দেজের সম্ভাবনাও দেখছেন। কিন্তু লাপোর্তা বলছেন, কোমানকে বরখাস্ত করার মতো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি ক্লাব কর্তৃপক্ষ, ‘সিদ্ধান্তটা হচ্ছে কোমানই কোচ থাকছেন। তিনিও আমাদের মতো বার্সেলোনার সমর্থক। তিনিও চান, বার্সেলোনা ভালো করুক। এখনো তাঁর চুক্তির মেয়াদ আছে এবং তাঁকে যোগ্য সম্মানটা দেওয়া উচিত।’

default-image

কিন্তু ফুটবল মহলে যে বার্সেলোনার সম্ভাব্য কোচ হিসেবে অনেকের নাম শোনা যাচ্ছে! তা লোকে যা–ই বলুক, লাপোর্তা এখনো কোমানের ওপরই আস্থা রাখছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘জাভির সঙ্গে আমার সব সময়ই কথা হয়। কারণ, আমরা বন্ধু। পেপ গার্দিওলার ব্যাপারেও সেই একই কথা বলব। তাদের ভাবনাটা কী, তা আমি জানতে চাই। কারণ, তারা আমার চেয়ে একটু বেশিই জানে আর বোঝে।’ আসল কথাটা যেন এরপরই বললেন লাপোর্তা, ‘আমাদের কোচের নাম কোমান। আমরা তাঁকে নিয়ে গর্বিত।’

ক্যাম্প ন্যুয়ের আকাশে ভেসে বেড়ানো গুঞ্জনটাকে লাপোর্তা পাত্তা দিতেই রাজি নন, ‘মানুষ যা খুশি ভাবতে পারে। আমি কখনোই বলিনি যে কোমানের প্রতি আমাদের আস্থা নেই। আমি মনে করি, কোমানের প্রতি আমাদের এই আত্মবিশ্বাস তাঁর প্রাপ্য।’ লাপোর্তা পরে যোগ করেন, ‘কোমানকে কোচ করা এবং তাঁর ওপর আস্থা রাখার সিদ্ধান্তটাকে আমি একদম সঠিক বলব। আমি আবারও বলছি, আমাদের কোচ কোমানই।’

default-image

বার্সেলোনার সঙ্গে কোমানের বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ২০২২ সালের গ্রীষ্ম পর্যন্ত। এরপর আর তাঁর সঙ্গে নতুন চুক্তি বার্সেলোনা করবে বলে মনে হয় না। ক্যাম্প ন্যুয়ের ক্লাবটি বরং উঠতি তারকাদের সঙ্গে নতুন চুক্তি নিয়ে বেশি ভাবছে। লাপোর্তা বিষয়টি নিয়ে বলেছেন, ‘আমাদের যে তরুণ খেলোয়াড়েরা আছে, তাদের সঙ্গে নতুন চুক্তি করাটাই এখন অগ্রাধিকার পাবে। আমরা সব তরুণ খেলোয়াড়দের চুক্তি নবায়ন করা নিয়েই ভাবছি। আশা করি, আগামী সপ্তাহেই ভালো খবর আসবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন