default-image

ইয়ুর্গেন ক্লপ এমন কিছু পেতে যাচ্ছেন তা একেবারে অনিশ্চিত ছিল না। মার্সেলো বিয়েলসা বড় প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। কিন্তু লিভারপুলকে দীর্ঘ ৩০ বছর পর ইংল্যান্ডের শীর্ষস্থানীয় লিগ জেতানোর মাহাত্ম্যই অন্যরকম।

সেরা ম্যানেজারের পুরষ্কার তাই ক্লপের হাতেই উঠল। ইংল্যান্ডের লিগ ম্যানেজার্স অ্যাসোসিয়েশনের (এলএমএ) বর্ষসেরা ম্যানেজারের পুরষ্কার জিতলেন ক্লপ। ১৩ বার প্রিমিয়ার লিগজয়ী স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের নামে পুরষ্কারটির নাম ‘ফার্গুসন ট্রফি’। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক এ ম্যানেজার বিজয়ী হিসেবে ক্লপের নাম ঘোষণা করেন।

ক্লপের সঙ্গে মজার স্মৃতিও ভাগ করে নেন ফার্গুসন, ‘লিগ জয়ের খবর ভোর সাড়ে ৩টায় ফোন করে জানানোর ব্যাপারে তোমাকে ক্ষমা করছি। ধন্যবাদ, তুমি যোগ্য হিসেবেই জিতেছ।’ ক্লপের নেতৃত্বে লিভারপুল এখন ক্লাব বিশ্বকাপ, ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন এবং ঘরোয়া লিগজয়ী। ফার্গুসনকেও প্রশংসা ফিরিয়ে দেন ক্লপ, ‘লিভারপুল ম্যানেজার হিসেবে এটা বলা ঠিক হবে না। কিন্তু আমি তাকে পছন্দ করি।’

ফার্গুসনের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতের স্মৃতিও রোমন্থন করেন ক্লপ, ‘মনে আছে তিনি-ই প্রথম ব্রিটিশ ম্যানেজার যার সঙ্গে দেখা করেছিলাম। এক সঙ্গে সকালের নাশতা করেছি। তার মনে আছে কি না জানি না। কিন্তু আমি ভুলিনি। ওই মুহূর্তটা আমার কাছে ছিল পোপের সঙ্গে সাক্ষাতের মতো। আমি একটা ট্রফি জিতব এবং সেখানে তার নাম খোদাই থাকবে তা কখনো ভাবিনি।’

লিডস ইউনাইটেডকে দীর্ঘ ১৬ বছর পর ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ফিরিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ মার্সেলো বিয়েলসা। ফার্গুসনের কাছে ক্লপের সাফল্যের মাহাত্ম্য এর চেয়েও বেশি, ‘আমরা লিডসের ১৬ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফেরা নিয়ে কথা বলি। কিন্তু লিভারপুলের ৩০ বছর পর লিগ জয় অবিশ্বাস্য ব্যাপার!’

নিজের ট্রফি জয় লিভারপুলের স্টাফদের প্রতি উৎসর্গ করেছেন ক্লপ। তিনি বলেন, ‘আগে যারা এলএমএ পুরষ্কার জিতেছেন তাদের পাশে জায়গা করে নিতে পেরে খুব সম্মানিত লাগছে। অবশ্যই এখানে লিভারপুলের ম্যানেজাররা আছেন। বিল শ্যানকি, বব পেইসলি, জো ফাগান, স্যার কেনি ডালগ্লিস এবং সাম্প্রতিক সময়ে ব্রেন্ডন রজার্স। এ বছর আমরা যা যা জিতেছি অসাধারণ কোচিং স্টাফ ছাড়া সেসব সম্ভব হতো না।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0